logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

ফাউচির কথা শুনলে ৭-৮ লাখ লোকের মৃত্যু হতো: ট্রাম্প

Listening to Fauci would have killed 7-8 lakh people says Trump
ফাইল ছবি
করোনাভাইরাস নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আর দেশটির শীর্ষ মহামারি বিশেষজ্ঞ ডা. অ্যান্থনি ফাউচি দুই মেরুতে অবস্থান করছেন। যুক্তরাষ্ট্রে মহামারির বিস্তারের পরপরই সেটা স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু সময় যত গড়িয়েছে দূরত্ব আরও বেড়েছে দুইজনের মধ্যে।

তবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে ঘিরে ডা. ফাউচিকে রীতিমতো ধুয়ে দিয়েছেন ট্রাম্প। ট্রাম্পের ভাষায়, ফাউচির কথা শুনলে নাকি যুক্তরাষ্ট্রে ৭-৮ লাখ মানুষের মৃত্যু হতো। এমনকি ফাউচিকে ‘নির্বোধ’ বলেও সম্বোধন করেছেন ট্রাম্প। সমর্থকদের সঙ্গে এক ফোন কলে ট্রাম্প এমন মন্তব্য করেছেন।

করোনায় যুক্তরাষ্ট্রে এ পর্যন্ত ২ লাখ ২০ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে। আবার সামনে নির্বাচন। তাই মহামারি মোকাবিলায় ‘ব্যর্থ হওয়ার’ ঝাঝ অনেকটাই গায়ে লেগেছে ট্রাম্পের। যদিও তিনি শুরুতেই এই ভাইরাসকে ‘সাধারণ ফ্লু’  বলেও মন্তব্য করেছিলেন। আর এখন সব দায় চাপাচ্ছেন অন্যদের ঘাড়ে।

ট্রাম্পের উদ্ধৃতি দিয়ে মার্কিন গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, দেশের মানুষজন কোভিড শুনে শুনে ক্লান্ত। তারা বলছে, এবার ছেড়ে দাও। আমাদের নিজেদের মতো করে বাঁচতে দাও। ফাউচি আর কোভিড টিমের বাকি সব ডাক্তার নির্বোধ। তারা মানুষজনকে জোর করে বেঁধে রাখছে।

ট্রাম্প আরও বলেন, তাদের কথা শুনলে যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যু হতো ৫ লাখ মানুষের। কিছুক্ষণ পর তিনি বলেন, যদি আমরা তার (ডা. ফাউচি) কথা শুনতাম তাহলে যুক্তরাষ্ট্রে এখন ৭-৮ লাখ মানুষের মৃত্যু হতো।

গত মাসে হোয়াইট হাউজে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ওই অনুষ্ঠানে যোগ অনেকেই পরবর্তীতে করোনায় আক্রান্ত হন। সেই তালিকায় প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প, ফার্স্টলেডি মেলানিয়া ট্রাম্প ও তাদের ছেলে ব্যারন ট্রাম্পও রয়েছে। পরে ডা. ফাউচি ওই অনুষ্ঠানের উল্লেখ করে বলেন, হোয়াইট হাউজে করোনা ছড়ানোর ইভেন্ট করা হয়েছিল।

আরও পড়ুন: 
আমিরাত-ইসরাইলের ভিসামুক্ত ভ্রমণের চুক্তি
হোয়াইট হাউজ সফর করে করোনায় আক্রান্ত লেবাননের গোয়েন্দা প্রধান
ফ্রান্সে চরমপন্থীদের বিরুদ্ধে পুলিশি অভিযান

RTVPLUS