Mir cement
logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ৪ আষাঢ় ১৪২৮

ঈদের দিন যেভাবে কাটলো জায়েদ খানের

ছবিতে শিশুদের সঙ্গে জায়েদের ঈদ আনন্দ।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির পর পর দুইবারের নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক ও চিত্রনায়ক জায়েদ খান ভিন্নভাবে ঈদ উদযাপন করলেন।

শিল্পী সমিতির দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই অসচ্ছল শিল্পী ও কলাকুশলীদের পাশে দাঁড়াতে দেখা গেছে তাকে। অসহায় মানুষের জন্য সাপোর্ট নামের প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছেন তিনি। এছাড়া সময় পেলেই স্পেশাল চাইল্ড, এতিম ও সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের সঙ্গে সময় কাটান চিত্রনায়ক জায়েদ খান।

এবার ঈদ উল ফিতরের নামাজ আদায়ের পর মাকে সালাম করে সেইসব শিশুদের কাছে ছুটে গিয়েছিলেন অন্তর জ্বালা খ্যাত নায়ক।

রাজধানীর ‘ফ্যামিলি ফর চিলড্রেন’ (এফএফসি) পরিদর্শনে যান তিনি। সেখানে এতিম ও স্পেশাল চাইল্ডদের জন্য চকলেট, চিপস, ফুল, মাস্ক ও নানা উপহার নিয়ে হাজির হয়েছিলেন।

নায়কের কাছে থেকে উপহার পেয়ে শিশুদের সবার চোখে মুখে ফুটে ওঠে উচ্ছ্বাস। এ সময় শিশুদের আনন্দ দিতে নিজের সিনেমার গানের সঙ্গে ড্যান্স করেন এই নায়ক। শিশুরাও জায়েদের সঙ্গে নাচে অংশ নেন।

এ ব্যাপারে জায়েদ খান আরটিভি নিউজকে বলেন, ওদের জন্য কিছু উপহার নিয়ে এসেছিলাম। অনেকেই জানেন আমি সুযোগ পেলেই এফএফসিতে আসি। শিশুদের সঙ্গে সময় কাটাই। নিজের জায়গা থেকে যতটুকু পারি সহযোগিতা করি। এতিম ও বিশেষ শিশুদের সঙ্গে কাটানো সময়টা বেশ ভালো লাগে। ওরা অপেক্ষায় থাকে কবে আমি আসবো। এই শিশুদের সঙ্গে অদ্ভুত এক মায়ার বাঁধনে জড়িয়ে গেছি। নতুন নোটের ঈদ সালামি পেয়ে তারা খুব খুশি হয়েছে। আর এখানে এলে চকলেট তো আনতেই হয়। এছাড়া ঈদের জন্য সবাইকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়েছি।

এদিকে এই প্রথমবার বাবাকে ছাড়া ঈদ কাটছে জায়েদ খানের। গেলো বছর ৩১ ডিসেম্বর মৃত্যুবরণ করেন তার বাবা এম এ হক।

জায়েদ খান বলেন, যার বাবা নেই সেই বোঝে বাবা কী। সন্তানের জন্য বাবা কত বড় আশ্রয়স্থল। সবাই আমার বাবার জন্য দোয়া করবেন। বাবার হয়ে আমি যেন মানুষের সেবা করে যেতে পারি।

এম

RTV Drama
RTVPLUS