• ঢাকা শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১
logo
কৃষককে অফিস থেকে বের করে দেওয়ায় দুই কর্মকর্তাকে বদলি
নয়নাভিরাম পপি চাষ করে কৃষক গ্রেপ্তার
মানিকগঞ্জের শিবালয়ে ভুট্টাখেতের মাঝে লুকিয়ে নিষিদ্ধ পপি গাছ চাষ করায় কৃষক নুরুল খানকে (৪৫) গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। রোববার (২৫ ফেব্রুয়ারি) উপজেলার তেওতা ইউনিয়নের পুরান পয়লা নামক স্থান থেকে পপি গাছ জব্দ করা হয়। গ্রেপ্তার কৃষক একই এলাকার জাবেদ খানের ছেলে। জানা গেছে, এদিন সকালে ৯ হাজার ৮২০টি পপি গাছসহ নুরুল খানকে আটক করা হয়। এরপর তার ক্ষেত থেকে প্রায় ৩০ হাজার পপি গাছ কেটে ফেলা হয়েছে। এর মধ্যে অনেক গাছে ফুল ও ফল ধরেছিল।  স্থানীয়রা জানায়, আমরা আগে কখনও পপি চাষ করতে দেখিনি। পুলিশের মাধ্যমে জানতে পেরেছি এখানে আফিমের চাষ হচ্ছে। জানতে পারলাম এটা ভয়াবহ মাদক মাদক তৈরির উপকরণের গাছ। এ ধরনের ভয়াবহ মাদক যারা চাষ করে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া উচিৎ। জেলা ডিবি পুলিশের এসআই রিপন নাগ জানান, রোববার সকালে পপি গাছসহ কৃষক নূরুল ইসলামকে আটক করা হয়। তার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য আইনে দুটি মামলার প্রস্তুতি চলছে। মানিকগঞ্জ জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ইনচার্জ আবুল কালাম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে পপি গাছসহ নুরুল ইসলামকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে শিবালয় থানায় ১টি মামলা প্রক্রিয়াধীন। উদ্ধার করা আফিম গাছগুলো পরীক্ষার জন্য মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরে পাঠানো হবে। প্রসঙ্গত, দেখতে নয়নাভিরাম হলেও পপি চাষ বাংলাদেশের আইনে নিষিদ্ধ। কারণ এই ফুলের রস থেকেই তৈরি হয় আফিম, হেরোইন ও মরফিনের মতো ভয়ংকর সব মাদক।