Mir cement
logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ১৫ শ্রাবণ ১৪২৮

১০ ঘণ্টা অপেক্ষার পরেও মিলছে না আরিচা-কাজিরহাটের ফেরি 

১০ ঘণ্টা অপেক্ষার পরেও মিলছে না আরিচা-কাজিরহাটের ফেরি 
মিলছে না আরিচা-কাজিরহাটের ফেরি 

বিধিনিষেধ শিথিল ও ঈদে ঘরমুখো মানুষের কারণে ফেরিঘাট গুলোতে বেড়েছে যাত্রীপরিবহন ও মানুষের চাপ। আরিচা-কাজিরহাট ফেরিঘাটে যানবাহন পারাপারের জন্য ৮ থেকে ১০ ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হচ্ছে।

বর্তমানে ঘাটে পারাপারের জন্য প্রায় পাঁচ শতাধিক যানবাহন অপেক্ষায় রয়েছে।যানজট নিরসনের জন্য কাজ করছেন বাংলাদেশ নৌপরিবহন করপোরেশন।শনিবার (১৭ জুলাই) কাজিরহাট ফেরিঘাটের ব্যবস্থাপক মাহবুবর রহমান আরটিভি নিউজকে জানিয়েছে, ঈদে ঘরমুখো মানুষের বাড়তি চাপ থাকায় যানবাহন পারাপারে ধীরগতি রয়েছে। তিনি আরও বলেন ঝুঁকিপূর্ণ পল্টুনটি ঝুঁকিমুক্ত করা হয়েছে।

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী এই রুটে আরও একটি ফেরি দিতে চেয়েছেন। সেটি চলাচল শুরু করলেই যানজট কমে আসবে। তবে সড়ক পথে যানজটের কারণে দীর্ঘ যানজট থাকার কারণে ঢাকার আশপাশের জেলার মানুষ এই নদীপথ বেছে নিয়েছেন। ফলে হঠাৎএই নদীপথে যানবাহনের চাপ বেড়েছে।

কাজিরহাট ফেরিঘাটের কর্তৃপক্ষ সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে, যানজট থাকলেও জনগন তেমন ভোগান্তির শিকার হচ্ছে না। যানজট থাকলেও ঠিকমত পারাপার হচ্ছে সবাই।কয়েকটা ফেরি বাড়ালে এই সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে বলে আশা প্রকাশ করেন তারা।

কাজিরহাট ফেরিঘাট ব্যবস্থাপক মাহবুবুর রহমান সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ পল্টুনকে আমরা ঝুঁকিমুক্ত করে ঘাটের পরিবেশ ফিরিয়ে এনেছি।স্বাস্থ্যবিধি মেনে সকলকে ঘাটে ফেরিতে উঠতে হচ্ছে। মাস্ক না থাকার কারণে অনেকেই ফেরিতে উঠতে দেওয়া হচ্ছে না।

তিনি আরও জানান শুক্রবার (১৬ জুলাই ) দুপুরে নৌপরিবহন মন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরি আমাদের একটি ফেরি দেওয়ার কথা দিয়েছেন।সেটি চালু হলেই পারাপারের গতি বাড়বে ও যানজটমুক্ত হবে।

এমআই

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS