Mir cement
logo
  • ঢাকা বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১৩ শ্রাবণ ১৪২৮

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ

  ২৪ মে ২০২১, ১৭:৪৬
আপডেট : ২৪ মে ২০২১, ১৮:০৬

প্রে'মিকাকে বউ পরিচয়ে ফ্ল্যাট ভাড়া নেয়ায় যা হলো কর্মকর্তার

প্রেমিকাকে বউ পরিচয়ে ফ্লাট ভাড়া নেয়ায় যা হলো কর্মকর্তার
ফাইল ছবি

গোপালগঞ্জে এপিসি কোম্পানির খুলনা অঞ্চলের আঞ্চলিক ম্যানেজার সাইফুল ইসলামের (৫০) অর্ধগলিত গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সোমবার (২৪ মে) সকালে গোপালগঞ্জ শহরের মোহাম্মদপাড়া এলাকার রংধনু ভিলার ২য় তলার ফ্ল্যাটের বাথরুম থেকে ঔষধ কোম্পানির ওই কর্মকর্তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পরকীয়ার জেরে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ।

নিহত সাইফুল ইসলামের (৫০) ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা উপজেলার দক্ষিণ গঙ্গাধরদী গ্রামের আব্দুল লতিফ মল্লিকের ছেলে। তিনি খুলনা শহরের ডিবিআর সদর দপ্তরের কবিরের বটতলা এলাকায় স্ত্রী ও ছেলে-মেয়েদের নিয়ে বসবাস করতেন।

নিহতের স্ত্রী আরিফা বেগম বলেন, আমার স্বামী শারমিন নামে এক নারীর সাথে সম্প্রতি পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েছে বলে তিনি আমাকে জানান। ওই নারীর আগে আরও ২টি বিয়ে হয়ে ছিলো। এ নিয়ে আমার স্বামী প্রচণ্ড চাপে মধ্যে ছিলেন। গত বৃহস্পতিবার (২০মে) খুলনার বাসা থেকে তিনি বের হন। পরের দিন শুক্রবার সকাল ৬টার দিকে মোবাইলে প্রথম তার সাথে আমার কথা হয়। পরে বেলা ১১টার দিকে মোবাইলে ফের কথা হয়। তখন তিনি ভীষণ ঝামেলার মধ্যে আছেন জানিয়ে ফোন কেটে দেন। এরপর থেকে আমার স্বামীর ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। তার কোন সন্ধান না পেয়ে আমি শনিবার (২২ মে) খুলনার সোনাডাঙ্গা থানায় একটি নিখোঁজ জিডি করি।

শহরের মোহাম্মদ পাড়ার রংধনু ভিলার মালিক মো. সাহিদুল ইসলাম শেখ বলেন, অজ্ঞাত ওই নারী সাইফুল ইসলামকে তার স্বামী পরিচয়ে দিয়ে ৩ মে ফ্লাটটি ভাড়া নিয়ে কিছু মালামাল রেখে চলে যান। সে সময় ওই নারী জানায় তার স্বামী খুলনা থেকে গোপালগঞ্জে বদলী হয়েছেন। ঈদের পর ২০ মে দুপুরে ওই নারী ও সাইফুল ইসলাম এসে বাড়িতে ওঠেন। এ সময় আমি ভোটার আইডি কার্ড ও অগ্রিম ভাড়ার চাই। তারা এগুলো পরে দেবে বলে ফ্ল্যাটে ওঠেন। তখন ওই নারী বোরখা পরা ও মুখে মাস্ক ছিল। এ কারণে তার চেহারা বোঝা যাচ্ছিলো না। পরের দিন শুক্রবার জুম্মার নামাজ পড়ে বাড়ি ফিরে আমি ওই ফ্ল্যাটে তালা দেয়া দেখতে পাই।

গোপালগঞ্জ সদর থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম জানান, সাইফুল ইসলামের মরদেহ উদ্ধার করে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে মরদেহের গলা কাটা ছিল ও পচন ধরে দুর্গন্ধ বের হচ্ছিল। ঘটনাস্থল থেকে বিভিন্ন রকমের যৌন উত্তেজক সিরাপ ও ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে পরকীয়ার জের ধরে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

তিনি আরও জানান, ওই নারী এ ঘটনার সাথে জড়িত রয়েছে। তাকে গ্রেপ্তারে অভিযান শুরু করেছে পুলিশ। ওই নারীকে গ্রেপ্তার করতে পারলেই এ ঘটনার রহস্য উন্মোচিত হবে।

জিএম

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS