logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ১৭ ফাল্গুন ১৪২৭

বৃদ্ধের একাধিকবার ধর্ষণে সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্কুলছাত্রী

স্কুলছাত্রী×বৃদ্ধ×ধর্ষণ×অন্তঃসত্ত্বা×গঠন×মেয়ে×ঘটনা×বৃহস্পতিবার×
ছবি সংগৃহীত

যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলায় ১৫ বছরের এক কিশোরীর সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বার ঘটনায় নূর ইসলাম গাজী নামে এক ব্যক্তির নামে মামলা হয়েছে। ওই কিশোরীর বাবা বৃহস্পতিবার মামলাটি দায়ের করেন। ওই দিন রাতেই নূর ইসলামকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ আদালতে পাঠায়। পরে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

ঝিকরগাছা থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক জানান, ওই শিশুর পরিবার ও নূর ইসলাম গাজীর শ্বশুরবাড়ি ঝিকরগাছার একই জায়গায়। তারা পাশাপাশি বাড়িতে থাকতেন। মেয়েটি তাকে জামাই বলে ডাকতো। নূর ইসলাম গাজীর আসল বাড়ি মনিরামপুর উপজেলার হরেরগাতি গ্রামে।

আরও পড়ুনঃ বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ: অন্তঃসত্ত্বা প্রেমিকা, মিথ্যা মামলা করতে গিয়ে আটক প্রেমিক

মামলার অভিযোগে কিশোরীর বাবা জানান, সাত মাস আগে তার মেয়েকে নূর ইসলাম গাজী ফুসলিয়ে বাড়ির পাশের একটি কাঁঠাল বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে। এরপর ঘটনা কাউকে না জানানোর জন্য ভয়ভীতি দেখান। ওই ঘটনার পরও একাধিকবার মেয়েকে ধর্ষণ করেন তিনি। সম্প্রতি শারীরিক গঠনের পরিবর্তন দেখা দিলে ঘটনা খুলে বলেন কিশোরী। এরপর তার বাবা বৃহস্পতিবার রাতে থানায় মামলা করেন।

আরও পড়ুনঃ খদ্দের আসলেই আমাদের জোর করে কাজে বাধ্য করতো নাজমা বাড়িওয়ালী

ওসি আব্দুর রাজ্জাক জানান, মেয়েটি সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা। তাকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য শুক্রবার যশোর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আসামিকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ইনচার্জ মিলন ঢালী বলেন, বয়স নির্ধারণ ও নমুনা সংগ্রহ করাতে মেয়েটিকে পুলিশ হাসপাতালে নিয়ে এসেছিল। শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটি থাকায় তাকে শনিবার আসতে বলা হয়েছে।

জেবি

RTV Drama
RTVPLUS