logo
  • ঢাকা বুধবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২১, ১৩ মাঘ ১৪২৭

চট্টগ্রামে ভোটের প্রচারে ফিরলেন প্রার্থীরা, আ.লীগ-বিএনপির পাল্টাপাল্টি অভিযোগ

চট্টগ্রামে ভোটের প্রচারে ফিরলেন প্রার্থীরা, আ.লীগ-বিএনপির পাল্টাপাল্টি অভিযোগ
করোনাভাইরাসের কারণে নির্বাচন স্থগিত হওয়ার প্রায় সাড়ে নয় মাস পর ফের ভোটের প্রচারে নেমেছেন চট্টগ্রামের মেয়র প্রার্থীরা।

শুক্রবার (৮ জানুয়ারি) চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে (সিসিসি) প্রধান দুই দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মেয়র প্রার্থীরা আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু করেন।

সরকার দলীয় মেয়র প্রার্থী আচরণ বিধি লঙ্ঘন করে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন। আজ শনিবার (৯ জানুয়ারি) সকালে চট্টগ্রাম নগরীর কাজির দেউড়ী এলাকায় জনসংযোগকালে এ অভিযোগ করেন তিনি।

এ সময় তিনি বলেন, নির্বাচনে একটা অসমতা বিরাজ করছে। সরকারদলীয় মেয়র প্রার্থী হলে একটা সুযোগ সুবিধা পাওয়া যাচ্ছে। নির্বাচন কমিশন ও সরকারকে এসব থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। ভোটের অধিকার রক্ষার জন্য, সাংবিধানিক অধিকার রক্ষার জন্য নির্বাচন কমিশন ও সরকারকে একটি গ্রহণযোগ্য সুষ্ঠু ও সুন্দর উৎসবমুখর গ্রহণযোগ্য নির্বাচন উপহার দিতে হবে।

এদিকে, চট্টগ্রাম নগরীর নতুন ফিশারঘাট এলাকায় জনসংযোগ করেছেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরী। তিনি বিএনপির প্রার্থীর অভিযোগকে মিথ্যা দাবি করে বলেন, বিএনপি প্রার্থী মিথ্যা অভিযোগ তুলে জনগণকে বিভ্রান্ত করতে চায়। তাদের বিভ্রান্তিতে জনগণ সাড়া দিবে না।

তিনি আরও বলেন, জনগণের মাঝে ভোট নিয়ে প্রচুর উৎসাহ উদ্দীপনা লক্ষ্য করা গেছে। আগামী ২৭ জানুয়ারি উৎসবমুখর পরিবেশে মানুষ ভোট হবে। চট্টগ্রামের মানুষ নির্বাচনের জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করেছিল। বর্তমানে তাদের নির্বাচিত কোনও জনপ্রতিনিধি নেই সিটি করপোরেশনে। যেখানেই যাচ্ছি সেখানে প্রচুর সাড়া পাচ্ছি। আজকেও জনসংযোগে প্রচুর মানুষ এসেছে। এটা দেখে অনেকেই বলে আচরণ বিধি লঙ্ঘন হচ্ছে। এতোগুলো লোক যে আসছে তাদের কি আসতে নিষেধ করতে পারবো বলেও প্রশ্ন রাখেন এ আ.লীগ প্রার্থী।

গেল বছরের ২৯ মার্চ চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনার কারণে নির্ধারিত তারিখের এক সপ্তাহ আগে ভোট স্থগিত করা হয়।

নির্ধারিত সময়ে ভোট করতে না পারায় আগস্টের শুরুতে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রশাসক নিয়োগ দেয় সরকার। এখন ৫ ফেব্রুয়ারির মধ্যে এ নির্বাচন করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে ইসির।

গত ১৪ ডিসেম্বর নির্বাচন কমিশনের জ্যেষ্ঠ সচিব মো. আলমগীর আগামী ২৭ জানুয়ারি চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে ভোটের নতুন তারিখ ঘোষণা করেন।

এসআর/এসএস

RTV Drama
RTVPLUS