Mir cement
logo
  • ঢাকা বুধবার, ০৪ আগস্ট ২০২১, ২০ শ্রাবণ ১৪২৮

বাড়তি ভাড়া নিয়েও পাশের সিটে যাত্রী

বাড়তি ভাড়া নিয়েও পাশের সিটে যাত্রী

করোনা মহামারির পরিস্থিতিতে ঈদে ঘরমুখো মানুষের চাপ সামাল দিতে ৬০ শতাংশ বর্ধিত ভাড়া নির্ধারণ করে বাসে দুই সিটে একজন যাত্রী বসানোর নিময় থাকলেও সেটি মানা হচ্ছে না। দূরপাল্লার বেশকিছু বাসে বর্ধিত ভাড়া নিয়ে সিট খালি না রেখেই ঢাকা ছাড়ছে। দূরপাল্লার বাসের পাশাপাশি রাজধানীর ভেতরে চলাচল করা গণপরিবহনেও গাদাগাদি করে যাত্রী ওঠানোর দৃশ দেখা গেছে।

শুক্রবার (১৪ জুলাই) ফার্মগেট, গুলিস্তান, উত্তরা, গাবতলী, যাত্রাবাড়ী ও সায়েদাবাদ টার্মিনাল ঘুরে দেখা গেছে, করোনা মহামারিতে স্বাস্থ্যবিধি নেমে বাসে যাত্রী ওঠার সরকারি নির্দেশনা মানতে শিথিলতা রয়েছে। বাসের সিট খালি না রেখেই বর্ধিত ভাড়া আদায় করেছে।

সায়েদাবাদ বাস টার্মিনাল থেকে নোয়াখালীর উদ্দেশে কয়েকটি বাসে সিট খালি না রেখে রওনা দিয়েছে। বাসগুলো বর্ধিত ভাড়া ৬০ শতাংশ হিসেবে ভাড়া ৬০০ হলেও ৫০০ টাকা রাখায় যাত্রীরাও তেমন আপত্তি করেনি।

কুমিল্লায় যাওয়ার জন্য যাত্রাবাড়ী বাস স্ট্যান্ডে দাঁড়িয়ে আছেন সবুজ মোল্লা। তিনি বলেন, একটি লোকাল বাসে প্রতিটি সিটে যাত্রী ওঠানো হচ্ছে। কিন্তু বাসে দ্বিগুণ ভাড়া চাওয়া হচ্ছে।

সায়েদাবাদ বাস টার্মিনাল থেকে চট্টগ্রাম, সিলেট, হবিগঞ্জ ও মৌলভীবাজার রুটে যাওয়া পরিচিত পরিবহন কোম্পানির বাসগুলো সিট খালি রেখে যাত্রী পরিবহন করতে দেখা গেছে।

হানিফ পরিবহনের কাউন্টার ম্যানেজার এনামুল হক বলেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে স্বাস্থ্যবিধি মানতে যাত্রীদের সতর্ক করা হচ্ছে। এছাড়া সরকারের ঘোষিত বর্ধিত হারে চট্টগ্রামে ও সিলেটে যেতে ৭৫০ টাকা ভাড়া নেওয়া হচ্ছে।

এফএ

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS