logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

চ্যালেঞ্জ নিতে তৈরি ডোমিঙ্গো

আরটিভি স্পোর্টস রিপোর্ট
|  ১৭ আগস্ট ২০১৯, ১৭:৩১ | আপডেট : ১৭ আগস্ট ২০১৯, ১৮:০৫
চ্যালেঞ্জ নিতে তৈরি ডোমিঙ্গো
ছবি- সংগৃহীত
বাংলাদেশ দলের কোচ হয়ে যিনিই আসেন তিনিই বিখ্যাত বনে যান। কথাটা শুনতে খানিক মজা লাগলেও উদাহরণ হিসেবে বলা যায় চণ্ডিকা হাতুরু সিংহের নাম। অখ্যাত হাতুরু ২০১৭ সালে যখন টাইগারদের দায়িত্ব ছেড়ে চলে যান, তখন তিনি রীতিমতো বিখ্যাত!

এর আগেও যারা কাজ করেছেন বাংলাদেশ দলের হয়ে, তারাও দায়িত্ব ছাড়ার পর বড় দলের কোচ হয়েছেন। রাসেল ক্রেইগ ডোমিঙ্গোও হয়তো তেমন কিছু ভাবছেন! ভাবতেই পারেন। সাকিব-তামিমদের দাপট এখন গোটা ক্রিকেট দুনিয়ায়। ২০১৫ সালের বিশ্বকাপ শেষে পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি টাইগারদের। উন্নতির গ্রাফ বরাবরই উপরের দিকে।

তাই সময় এখন বাংলাদেশের বলাই যায়। অনেক বড় নামের কোচরা যখন প্রতিযোগিতা দেয় কোচ হবার, তখন এমনটা বলাই যায় বৈকি। ডোমিঙ্গোকে কোচ নির্বাচন করে বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান পাপনও তেমনটাই বলেন।

‘এটা সত্যি যে, বাংলাদেশ আগের থেকে অনেক ভালো খেলছে। কোচ নির্বাচন করতে গিয়ে অনেকের সঙ্গেই কথা হয়েছে। তারাও বিশ্বাস করেন বাংলাদেশ ভালো খেলে আগের থেকে। যেমনটা ডোমিঙ্গোকে জিজ্ঞেস করেছিলেম, দক্ষিণ আফ্রিকায় কোচের দায়িত্ব ছেড়ে কেন এখানে আসতে চাইছেন? উত্তরে তিনি বলেছিল, বাংলাদেশে এখন যেকোনো দল এসে বলে-কয়ে জিততে পারে না। দেশের মাটিতে বাংলাদেশ ভয়ানক। বিশেষ করে সাব-কন্টিনেন্টে বাংলাদেশকে হারানো এতো সহজ না। তাছাড়া আগামী বিশ্বকাপ ভারতে অনুষ্ঠিত হবে। সেখানে বাংলাদেশের ভালো সুযোগ রয়েছে। কেন না, ভারতের পর বাংলাদেশ এই মুহূর্তে সেরা দক্ষিণ এশিয়ায়।’

২০১৭ সালে হঠাৎই যখন হাতুরু সিংহে বিদায় বলে দেন বাংলাদেশকে, তখন কোচ খোঁজার জন্য হুমড়ি খেয়ে পড়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। তখন বড় নামের কাউকে না পেয়ে অখ্যাত স্টিভ রোডসকে নিয়োগ দেয় বিসিবি। তার অধীনেও বাংলাদেশ অসাধারণ খেলেছে বিশ্বকাপটা বাদ দিলে। বিশ্বকাপ শেষে স্টিভকে বিদায় করে দিয়ে নতুন কোচের মিশনে নামে বিসিবি। তাতে খুব কম সময়েই দক্ষিণ আফ্রিকান কোচ রাসেল ক্রেইগ ডোমিঙ্গোকে নিয়োগ দিয়েছে বোর্ড। এ নিয়ে বিসিবিও ভালো কিছুর আশাবাদী। বিসিবি যেমনটা আশাবাদী ভালো কিছুর, ঠিক তেমনটাই আশাবাদী ডোমিঙ্গোই।

দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ডের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে এক বিজ্ঞপ্তিতে ডোমিঙ্গো জানান, বাংলাদেশের প্রধান কোচ হওয়ায় আমি সত্যিই নতুন চ্যালেঞ্জের অপেক্ষায় আছি। আমি অনুভব করি, আন্তর্জাতিক স্তরে কোচিংয়ের জন্য এটিই উপযুক্ত সময়। একইসঙ্গে আমি খুশি যে দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটকে ভালো সময়ে ছেড়েছি।

২০১২ সালের ডিসেম্বরে দক্ষিণ আফ্রিকা টি-টোয়েন্টি দলের কোচ হিসেবে নিয়োগ পান ডোমিঙ্গো। ২০১৩ সালে টেস্ট ও ওয়ানডে দলেরও কোচ করা হয় তাকে। ২০১৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ও ২০১৫ বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকাকে সেমি-ফাইনালে তোলায়ও সফল ভূমিকা ছিল ডোমিঙ্গোর।

২০১০ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা 'এ' দলের দায়িত্ব পেয়ে কাজ শুরু করা ডোমিঙ্গোকে ২০১৭ সালে আবারও ‘এ’ দলের কোচ হিসেবে নিয়োগ দেয় দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ড। বাংলাদেশ দলের দায়িত্ব পেয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা ‘এ’ দলের দায়িত্ব ছেড়ে আসছেন তিনি। কেন না এখনও ‘এ’ দলের দায়িত্বে আছেন ৪৪ বছর বয়সী রাসেল ক্রেইগ ডোমিঙ্গো।

আগামী ২১ আগস্ট ডোমিঙ্গোর যোগ দেয়ার কথা রয়েছে  বাংলাদেশ দলের অনুশীলন ক্যাম্পে।

আরও পড়ুন :

এমআর/সি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • খেলা এর সর্বশেষ
  • খেলা এর পাঠক প্রিয়