logo
  • ঢাকা বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

সব কথায় ধর্ম টানবেন না, কাশ্মীর ইস্যুতে ইরফান

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ০৫ আগস্ট ২০১৯, ১৯:৫১ | আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০১৯, ২১:০৩
kashmir
ইরফান পাঠান || ছবি- সংগৃহীত
ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত সরকার। তুলে দেয়া হয়েছে দেশটির সংবিধানের ৩৭০ ধারা। অর্থাৎ বিশেষ মর্যাদা হারিয়েছে জম্মু ও কাশ্মীর। পাশাপাশি রাজ্যটিকে ভেঙে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল জম্মু ও কাশ্মীর এবং লাদাখ তৈরির প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। এই সিদ্ধান্তের তীব্র প্রতিবাদ করেছে বিরোধী দলগুলো। মহাগুরুত্বপূর্ণ এই সিদ্ধান্ত নেয়ার আগেই ইঙ্গিত ছিল বড় কিছু ঘটতে চলছে। গেল কয়েক সপ্তাহ ধরেই সেনা মোতায়েন করা হচ্ছিল উপত্যকা জুড়ে। পর্যটকদের দ্রুত স্থান ত্যাগ করতে বলা হয়। বন্ধ করে দেয়া হয় হিন্দুদের অন্যতম ধর্মীয় আয়োজন অমরনাথ যাত্রা। উপত্যকা ছাড়ার নির্দেশ দেয়া হয় ভারত জাতীয় দলের সাবেক তারকা ও জম্মু-কাশ্মীর ক্রিকেট দলের হয়ে খেলা অলরাউন্ডার ইরফান পাঠানকেও।

বেশ কয়েকদিন ধরেই জম্মু-কাশ্মীর ক্রিকেট দলের পরামর্শক হিসেবেও দায়িত্বপালন করছেন ইরফান। শ্রীনগর থেকে চলে যাওয়ার নির্দেশ পাওয়ার পরেই টুইট করেন এই ক্রিকেটার। এই পেস অলরাউন্ডার লিখেন, ‘আমার হৃদয় পড়ে রয়েছে কাশ্মীরে। ভারতীয় সেনাবাহিনী ও ভারতীয় কাশ্মীরি ভাই-বোনদের সঙ্গেই রয়েছে আমার হৃদয় ও মন।’ সেই টুইটে হ্যাশ ট্যাগ হিসেবে তিনি লিখেন, #কাশ্মীর #কাশ্মীরআন্ডারথ্রেট।

---------------------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : ১৮ বছর পর এজবাস্টন জয় অস্ট্রেলিয়ার
---------------------------------------------------------------------

এই টুইটের পরেই বেশ কিছু টুইটার ব্যবহারকারীর সমালোচনার মুখে পড়তে হয় ইরফানকে। ৩৪ বছর বয়সী এই ক্রিকেটারকে আক্রমণ করে এক ব্যবহারকারী লিখেন, ‘বড় বড় কথা বলে শেষে #কাশ্মীরআন্ডারথ্রেট লিখে নিজের জেহাদি মানসিকতাই বুঝিয়ে দিলেন ইরফান। কাশ্মীর ইজ নট আন্ডার থ্রেট। ইট ওয়াজ আন্ডার থ্রেট। এবারের স্বাধীনতা দিবসে কাশ্মীরের ওপর থেকে ৩৫  এ এবং ৩৭০ ধারা তুলে নেয়া হবে।’

সংবিধানের এইধারা অনুযায়ী, জম্মু ও কাশ্মীরের বাসিন্দারা বিশেষ মর্যাদার অধিকারী। এই আইনে ভারতের বাকি রাজ্যগুলোর বাসিন্দারা কাশ্মীরে বসবাস বা সম্পত্তি কিনতে পারবেন না।

ইরফানকে কটাক্ষ করে লেখা সেই টুইটের পরে অবশ্য ওই ব্যবহারকারীকে অনেকে আক্রমণ করেন। ওই ব্যক্তির করা মন্তব্যের প্রতিবাদ করেন ইরফান। তিনি লিখেন, ‘অমরনাথ যাত্রীদের চলে যেতে বলা হয়েছে এবং যাত্রা বন্ধ করতে বলা হয়েছে। এর অর্থই হল, কাশ্মীরে আতঙ্কের পরিবেশ। সেই কারণেই নিরাপত্তার জোড়দার করা হয়েছে। নিজের নোংরা চিন্তাভাবনা বদলান। সব কথায় ধর্মকে টেনে আনবেন না। সব কথায় প্রমাণ চাওয়া থেকেও বিরত থাকুন।’

ওয়াই

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • খেলা এর সর্বশেষ
  • খেলা এর পাঠক প্রিয়