logo
  • ঢাকা রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৭ আশ্বিন ১৪২৬

দল মুহূর্তটা উপভোগ করবে সেটাই গুরুত্বপূর্ণ: বাংলাদেশ কোচ

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১১ জুন ২০১৯, ২২:৪৫
২০১৮ সালের মে মাসে বাংলাদেশ দলের কোচ হিসেবে দায়িত্ব নেন জেমি ডে। তার ভাষায় এক বছরে দলের বডি ল্যাঙ্গুয়েজ, অ্যাটিটিউড ও স্কিল বদলেছে। লাল-সবুজদের খেলায়ও তা বেশ পরিলক্ষিত হয়।

মঙ্গলবার বিশ্বকাপের প্রাক-বাছাই পর্বের দ্বিতীয় লেগে লাওসের বিপক্ষে গোল শূন্য ড্র করেছে বাংলাদেশ। যদিও প্রথম লেগে ১-০ গোলে এগিয়ে থাকায় ২০২২ বিশ্বকাপের বাছাই পর্ব খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা।

এদিন বেশ কয়েকটি সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেনি বাংলাদেশের আক্রমণভাগ। অবশ্য সবকিছু বাদ দিয়ে দল বাছাই পর্বে পৌঁছেছে সেটিকেই প্রাধান্য দিচ্ছেন কোচ।

মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ম্যাচ শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপ করেন জেমি ডে। সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন দলের অধিনায়ক জামাল ভূইঁয়াও।

এক বছরের আগের কথা মনে করিয়ে দিয়ে জেমি বলেন, অনেকেই বলেছিল, বিশ্বকাপ প্রাক-বাছাই পর্ব পার করতে পারবে না দল। আমি কখনোই আশাহত হইনি। দীর্ঘ এক বছর ধরে ছেলেরা ধাপে ধাপে নিজেদের তৈরি করেছে।

লাওসের ম্যাচে নাবিব নেওয়াজ জীবন বেশ কয়েকটি গোলের সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেননি। এমন কথা শুনে কোচ বলেন, আমি আজকে রাতে ফল নিয়ে চিন্তিত নই, কে মিস করেছে সেটা নিয়েও চিন্তা নেই আমার। আমাদের দল এই মুহূর্তটা উপভোগ করবে সেটাই আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ।

এদিকে বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক জামাল ভূইঁয়া বলেন, এটা একটা ভালো ম্যাচ ছিল। আমরা হয়তো ভালো খেলতে পারিনি। মানুষতো ফল চায়। আমরাও সেটা চাই। সেটা পেয়েছিও।

বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপ, সাফ ফুটবলে এই দলটিই নিজেদের সেরা পারফর্ম করেছিল। তবে আজকের ম্যাচে মূল সমস্যাটা কোথায় ছিল। ভিন্ন ম্যাচে ভিন্ন কৌশল। আমরা টিকিটাকা খেলতে পারিনি। তবে আপনারা কেমনটা চান? আপনারা চান না সুন্দর ফুটবল? আমরা সুন্দর ফুটবল খেলেছি।

যদিও জিততে পারিনি। তবে ভালো খেলে হারা থেকে সুন্দর ফুটবল উপহার দিয়ে মূল লক্ষ্যে পৌঁছেছি। এর থেকে বড় আর কি হতে পারে?

গেল ৬ জুন প্রাক-বাছাইয়ের প্রথম লেগে ১-০ গোলে জয় পায় বাংলাদেশ দল। লাওসের ঘরের মাঠে রবিউল হাসানের একমাত্র গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ।

ওয়াই/ডি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়