logo
  • ঢাকা রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬

ক্রিকেটকে বিদায় জানালেন যুবরাজ

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১০ জুন ২০১৯, ১৪:৪৭ | আপডেট : ১০ জুন ২০১৯, ১৯:০৬
আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানালেন যুবরাজ সিং। বিশ্বকাপ চলাকালীনই অবসর ঘোষণা করলেন ভারতের ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা এই অলরাউন্ডার৷

সবশেষ জাতীয় দলের হয়ে খেলেছেন ২০১৭ সালের জুনে। একই বছর ফেব্রুয়ারিতে ভারতের হয়ে টি-টোয়েন্টিতে অংশ নিয়েছিলেন যুবরাজ সিং। শেষ টেস্ট খেলেছেন ২০১২ সালে। 

চলতি বছরের ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগেও (আইপিএল) প্রায় অবিক্রীত ছিলেন যুবি। যদিও শেষ পর্যন্ত মুম্বাই ইন্ডিয়ানস বেস প্রাইসে তাকে দলে ভেড়ায়৷ আইপিএলের এবারের আসরে মোট ৪ ম্যাচ অংশ নেন৷ একটি হাফ সেঞ্চুরিসহ ৯৮ রান করেন তিনি।

অবসর নিয়ে এদিন যুবরাজ বলেন, অসংখ্য ক্রিকেট ভক্তের ভালোবাসা পেয়েছি৷ পরিবারকে সব সময় পাশে পেয়েছি৷ ভারতের হয়ে অনেক ম্যাচ খেলেছি৷ ন্যাটওয়েস্ট থেকে ২০১১ বিশ্বকাপ একাধিক ম্যাচ সারা জীবন আমার মনে থাকবে৷ মনে থাকবে ২০০০ সালে অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জয়৷

২০১১ সালের ভারতের দ্বিতীয় বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক ছিলেন তিনি। চারটি অর্ধশতক ও একটি শতক তুলে নেন। ১৫টি উইকেট শিকার করে টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড়ও নির্বাচিত হন তিনি।

২০১২ সালে ক্যানসারে আক্রান্ত হন যুবরাজ। যদিও সবাইকে অবাক করে আবার আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ২২ গজের লড়াইয়েয় ফিরে আসেন এই স্পিনিং অলরাউন্ডার।

ক্যানসার প্রসঙ্গে এদিন তিনি বলেন, ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার পর অনেকেই ভেবেছিলেন আমি আর ফিরতে পারব না৷ কিন্তু চিকিত্‍‌সক ও পরিবার সব সময় পাশে থেকেছেন আমার৷ আমি ফিরতে পেরেছি৷ তাই এবার সমাজের ক্যানসার আক্রান্তদের জন্য কিছু কাজ করতে চাই৷

ক্যারিয়ারে ৪০ টেস্ট, ৩০৪ ওয়ানডে ও ৫৮ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে অংশ নিয়েছেন যুবরাজ।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম জানাচ্ছে, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেয়ার পর ৩৭ বছর বয়সী যুবরাজ জি টি-টোয়েন্টি (কানাডা), ইউরো টি-টোয়েন্টি, হল্যান্ডে বা আয়ারল্যান্ডে খেলা চালিয়ে যাবেন। 

আজ মুম্বাইতে বিদায়ী বক্তব্যে যুবরাজ সিং বলেন, ‘’ক্রিকেট ছাড়ার সিদ্ধান্তটা খুব কঠিন এবং আমার জন্য খুব সুন্দর মুহূর্ত এটি। দীর্ঘ ২৫ বছর ধরে এই ২২ গজের সঙ্গে ছিলাম এবং প্রায় ১৭ বছর ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেছি।  আমি ভাগ্যবান, আমি ভারতের হয়ে চার'শর বেশি ম্যাচ খেলেছি। ক্রিকেটার হিসাবে আমার ক্যারিয়ার শুরু করার আগে আমি কখনোই এটি ভাবিনি।

আমি সফল হওয়ার চেয়ে ব্যর্থ হয়েছি অনেক বার, তবু হাল ছাড়িনি। লড়াই করে গিয়েছি নিজের সঙ্গে এবং আমি পেরেছি। ক্রিকেট আমাকে অনেক কিছু শিখিয়েছে অনেক কিছু দিয়েছে। আমিও এই ক্রিকেটের জন্য রক্ত,ঘাম দিয়েছি। বিশেষ করে যখন এই ক্রিকেটের মাধ্যমে আমার দেশের প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ হয়েছে। ভারতের জন্য খেলা, প্রত্যেকের ম্যাচের আগে জাতীয় সংগীত গাওয়া, ভারতের পতাকা জড়িয়ে খেলা। আমি মন থেকে বলছি, আমি আর কী চাইতে পারি?’’

ওয়াই/এসএস/এমআর

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়