• ঢাকা রবিবার, ১৯ মে ২০১৯, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

বিশ্বকাপে সেমিতে খেলার স্বপ্ন মুশফিকের

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২৮ এপ্রিল ২০১৯, ২০:২১ | আপডেট : ২৮ এপ্রিল ২০১৯, ২০:২৭
ছবি- সংগৃহীত
আগামী ৩০ মে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলসে বসবে দ্বাদশ ওয়ানডে বিশ্বকাপের আসর। আইসিসির এ মেগা ইভেন্টকে কেন্দ্র করে অংশগ্রহণকারী দেশগুলো জোর প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে। পিছিয়ে নেই বাংলাদেশও। মিরপুরে জোর প্রস্তুতি নিচ্ছেন জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। বিশ্বকাপে মাঠে নামার আগে রয়েছে আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজ। যেখানে স্বাগতিক আয়ারল্যান্ড ছাড়াও রয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

রোববার অনুশীলন শেষে সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন জাতীয় দলের উইকেটরক্ষক কাম ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। বিশ্বকাপ নিয়ে বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন তিনি।

মুশফিক বলেন, আমরা সকলে মাশরাফি ভাইয়ের জন্য বিশ্বকাপটা স্মরণীয় করে রাখার চেষ্টা করবো। কারণ এটাই হয়তো উনার শেষ বিশ্বকাপ। তাছাড়া আমাদের চারজনেরও হতে পারে এটি শেষ বিশ্বকাপ। এভাবে আর একসাথে বিশ্বকাপের মতো মঞ্চে খেলা হবে না।

ইংল্যান্ডের কন্ডিশন নিয়ে কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, ব্যাটিংয়ে আমাদের স্ট্রাইক রেট ঠিক রেখে খেলতে হবে। চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে আমরা ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রায় ৩২০ রান করেও হেরে গিয়েছিলাম। ওই ধরনের উইকেটে ৩৫০-৩৬০ রান করা উচিত ছিল। আমরা ঠিকঠাক প্রস্তুতি নিচ্ছি। টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানরা চেষ্টা করছে কিভাবে আরও উন্নতি করা যায়। লোয়ার অর্ডারে যারা আছে তারাও চেষ্টা করছে।

প্রথম বিশ্বকাপ স্মৃতি নিয়ে মুশফিক বলেন, সেবার তো বিশ্বকাপে খেলতে যাওয়ার আগে আলাদা রকমের অনুভূতি কাজ করছিল। কখন সময় আসবে, কখন খেলতে যাব। তখন কিছু গ্রেট ক্রিকেটার ছিলেন। টেলিভিশনে যাদের খেলা দেখে বড় হয়েছি তাদের বিপক্ষে খেলব তাই আলাদা রকমের রোমাঞ্চ কাজ করছিল। দলে এখন তরুণ যারা আছে তারা তো বেশ ম্যাচিউর। তাদেরও হয়তো আলাদা রকমের অনুভূতি কাজ করছে।

সাবেক এ অধিনায়ক বলেন, সেমিফাইনাল হয়তো অনেক কঠিন একটা কাজ। যেকোনও কাজই এত সহজে করে ফেললে মর্যাদা এতটা থাকে না। আমি মনে করি আমাদের দলের যথেষ্ট সামর্থ্য আছে নকআউট পর্বে যাওয়ার। নকআউট পর্বে গেলে যেকোনও কিছু ঘটতে পারে এটা তো সবাই জানে।

ইংল্যান্ডের কন্ডিশনে সব মিলিয়ে ১৮ ওয়ানডে খেলে চারটিতে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। তাই জয়ের সংখ্যা আরও বাড়িয়ে নিতে বোলারদের দিকে তাকিয়ে আছেন মুশফিক।

এএ/ওয়াই

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়