• ঢাকা রবিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ২ পৌষ ১৪২৬

ব্যালন ডি'অরের সেকাল-একাল

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ০৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ২০:৪৩ | আপডেট : ০৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ২১:১১
১৯৫৬ সালে  থেকে শুরু, একে একে পড়েছে ইয়োহান ক্রুইফ (নেদারল্যান্ড), ফ্রেঞ্চ বেকেনবাওয়ার (জার্মানি), রোনালদো (ব্রাজিল), রোনালদিনহোর (ব্রাজিল) মতো কিংবদন্তীদের হাতের স্পর্শ। তবে বিগত ১০ বছর ধরে ব্যালন ডি'অর মালিকানা কিনে নিয়েছিলেন লিওনেল মেসি ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। পরিসংখ্যান তো তাই বলে।

২০০৭ সালের পর থেকে ফুটবলের ব্যক্তিগত সবচেয়ে সম্মানজনক এই পুরস্কার ১০বার সমানভাগে ভাগাভাগি করেছেন তারা দুইজনই। এবারও এই দুই তারকার নামসহ আরও ত্রিশ ফুটবলারের নাম রয়েছে সেরাদের তালিকায়।

western তবে এবার এই ট্রফিতে নতুন কোনো হাতের ছোঁয়া যে পড়তে যাচ্ছে তা অনেকটা নিশ্চিত।

সোনালী রঙের চকচকে এই ট্রফিতে ২০১৮ সালে কার ছোঁয়া পড়বে তা জানা যাবে আজ সোমবার রাতেই।

ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে ঘোষণা হবে বিশ্বকাপের বছরের সেরা ফুটবলারের নাম। সেরার দৌড়ে অনেক পথ এগিয়ে আছেন লুকা মদ্রিচ (ক্রোয়েশিয়া), রাফায়েল ভারানে (ফ্রান্স), কিলিয়ান এমবাপে (ফ্রান্স)।

বিভিন্ন ক্রীড়াভিত্তিক ওয়েবসাইটের ফাঁস করা তথ্য বলে বিশ্বকাপের সেরা খেলোয়াড় মদ্রিচই হতে যাচ্ছেন এবারের বর্ষসেরা ফুটবলার।

ইয়ুহান ডি ক্রুইফ (১৯৭১)

তা যেই হোক এই ট্রফি প্রথম স্পর্শ করেন ইংল্যান্ডের স্টেইনি ম্যাথুস। ১৯৫৬ সালে প্রথম বার আয়োজিত এই পুরস্কার স্টোক সিটির এই সাবেক খেলোয়াড়।

তখন অবশ্য ব্যালন ডি'অর ছিল না ট্রফির নাম। ফিফা ওয়ার্ল্ড প্লেয়ার অফ দ্য ইয়ার নামে শুরু হয়েছিল। সবচেয়ে বেশি পাঁচ বার করে এই ট্রফির মালিক হয়েছেন মেসি ও রোনালদো। এছাড়া তিনবার করে নাম লেখান ফ্রান্সের মিশেল প্লাতিনি, নেদারল্যান্ডের ইয়োহান ক্রুইফ ও মারকো ভেন বাস্তেন।

এছাড়া জার্মান কিংবদন্তী ফ্রাঞ্চ বেকেনবাওয়ার ও কার্ল রুমেনেগি, সাম্বাবয় রোনালদো, আর্জেন্টিনা ও স্পেন জাতীয় দলে খেলা আলফ্রেডো ডি স্টেফেনো, ইংলিশ কেভিন কিগান দুবার করে বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়ের মুকুট পড়েন। এছাড়া আরও ১৫ ফুটবলার একবার করে এই খেতাব অর্জন করেন। এদের মধ্যে ফ্রেঞ্চ ফরোয়ার্ড জিনেদিন জিদান, জার্মান স্ট্রাইকার জার্ড মুলারও রয়েছে।

দেশ হিসেবে জার্মানির ঘরে বেশি গেছে ব্যালন ডি'অর। পাঁচ  জার্মান ফুটবলার মোট সাত বার এই ট্রফি তাদের ঘরে তোলে। ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা এক্ষেত্রে ভাই-ভাই। দুদেশে মোট ৫ বার করে এই সোনালি ট্রফির পদচারণা হয়।

তবে এক্ষেত্রে বলার অপেক্ষা রাখে না আর্জেন্টিনার পাঁচ বার ট্রফি বিজয়ী খেলোয়াড় একজনই এবং তা লিওনেল মেসি। ব্রাজিলের চার খেলোয়াড়ের নাম আছে ব্যালন ডি অ'রের শরীরে। তবে আশ্চর্য হলেও সত্য যে বিশ্বের দুই কিংবদন্তী ফুটবলার পেলে কিংবা দিয়াগো ম্যারাডোনা কেউই ছুঁতে পারেননি স্বর্ণের ট্রফিটি।

এস/এমআর

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়