• ঢাকা শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১
logo

নিউইয়র্কে মিলারের ব্যাটে কষ্টার্জিত জয় দক্ষিণ আফ্রিকার

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ০৯ জুন ২০২৪, ০০:০০
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ
ছবি- গেটি ইমেজ

বিশ্বকাপের শুরু থেকেই সমালোচনার শিকার হচ্ছে নিউইয়র্কের নাসাউ কাউন্টি ক্রিকেট স্টেডিয়ামের ড্রপ-ইন পিচ। কোনোভাবেই বোলাদের সামনে দাঁড়াতে পারছেন না ব্যাটাররা। শ্রীলঙ্কা ম্যাচের পর নেদারল্যান্ডের বিপক্ষেও সহজ লক্ষ্য পেয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা।

তবে ডাচদের দুর্বল বোলিং লাইনের কাছেও ধুকতে হয়েছে ডি কক-মারক্রামদের মতো বিশ্বসেরা ব্যাটারদের। শেষ পর্যন্ত লড়াই করে চার উইকেটের জয় পেয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। ৫৯ রানের ইনিংস খেলে জয়ের নায়ক ডেভিড মিলার।

শুক্রবার (৮ জুন) আগে ব্যাট করে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ১০৪ রানের লক্ষ্য দিয়েছিল নেদারল্যান্ডস। জবাব দিতে নেমে ৪ উইকেট এবং ৭ বল হাতে থাকতে জয় তুলে নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা। টানা দুই জয়ে ডি গ্রুপে সবার উপরে রয়েছে তারা।

মামুলি লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে দক্ষিণ আফ্রিকা। মাত্র ১২ রানে ৪ উইকেট হারায় প্রোটিয়ারা। ইনিংসের প্রথম বলেই রান আউটে কাঁটা পড়েন কুইনটন ডি কক।

১০ বলে ৩ রান করে আউট হন আরেক ওপেনার রেজা হেনড্রিক্স। এদিন পিচে থিতু হতে পারেননি এইডেন মারক্রাম। ৭ বলে ৪ রান করে সতীর্থদের আশা যাওয়ার মিছিলে যোগ দেন মারকুটে ব্যাটার হেইনরিচ ক্লাসেন। এতে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে প্রোটিয়ারা।

তবে ক্রিস্টান স্টাবসকে সঙ্গে নিয়ে দলের হাল ধরেন ডেভিড মিলার। দুজনের ব্যাটে ভর করে জয়ের পথে হাঁটতে থাকে দক্ষিণ আফ্রিকা। ১৭তম ওভারে স্টাবসকে ফিরিয়ে ডাচদের খেলায় ফেরান বাস ডে লিডে। ৩ বলে ৫ রান করে আউট হন মার্কো জেনসেন।

শেষ ১২ বলে প্রোটিয়াদের লক্ষ্য দাঁড়ায় ১৬ রান। তবে মিলারের ৫১ বলের অপরাজিত ৫৯ রানের ইনিংসে ভর করে ৪ উইকেট এবং ৭ বল হাতে থাকতে জয় তুলে নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা। ৫০ বলে ফিফটি তুলে নেন মিলার।

নেদারল্যান্ডসের হয়ে ভিভিন কিংমা ও লরগান ভ্যান বিক দুটি করে উইকেট নেন। এ ছাড়াও এক উইকেট শিকার করেন ব্যাস ডে লিডে।

এর আগে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় নেদারল্যান্ডস। ইনিংসের তৃতীয় বলে সাজঘরে ফেরেন ওপেনার মাইকেল লেভিট। ৬ বলে ২ রান করে তাকে সঙ্গ দেন আরেক ওপেনার ম্যাক্স ও’ডড।

তিন ব্যাট করতে এসে সাইব্রান্ড এংগেলব্রেচটকে সঙ্গে নিয়ে শুরু ধাক্কা সামাল দেওয়ার চেষ্টা করেন বিক্রম সিং। তবে ইনিংস বড় করতে পারেননি তিনি। ১৭ বলে ১২ রান করেন এই ডাচ ব্যাটার।

এরপর বাস ডি লিডে (৬), স্কট এডওয়ার্ড (১০) এবং ডাক আউট হন তেজা নিদামানুরু। এতে দলীয় ৪৮ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে ডাচরা। তবে এক প্রান্ত আগলে রেখে লড়াই করতে থাকেন এংগেলব্রেচট। তাকে সঙ্গ দেন লরগান ফন বিক।

শেষ দিকে ৪৫ বলে ৪০ রান করে এংগেলব্রেচট আউট হলেও লরগানের ২২ বলের ২৩ রানের ইনিংসে ভর করে ৯ উইকেট হারিয়ে ১০৩ রানের লড়াকু পুঁজি পায় নেদারল্যান্ডস।

মন্তব্য করুন

daraz
  • খেলা এর পাঠক প্রিয়
আরও পড়ুন
সুপার এইটে যুক্তরাষ্ট্র, বৃষ্টিতে কপাল পুড়লো পাকিস্তানের
পাঁচ ওভারের ম্যাচে পাকিস্তানের ভাগ্য নির্ধারণ, যখন শুরু হবে খেলা
স্কটল্যান্ডকে ম্যাচ ছেড়ে দেওয়া নিয়ে যা বললেন কামিন্স
মাহমুদউল্লাহর অবসর নিয়ে যা বললেন সাকিব