Mir cement
logo
  • ঢাকা শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ১১ আষাঢ় ১৪২৯

শূন্যের লজ্জার রেকর্ড বাংলাদেশের

‘শূন্য’-এর লজ্জার রেকর্ড বাংলাদেশের
ছবি- সংগৃহীত

মিরপুর টেস্টে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ‘শূন্য’- এর লজ্জার এক রেকর্ডের শিকার হলো বাংলাদেশ। এক টেস্টের দুই ইনিংস মিলিয়ে নয়জন বাংলাদেশি ব্যাটসম্যান ‘ডাক (শূন্য রানে আউট)’ এর শিকার হলেন।

লজ্জার এই রেকর্ডে বাংলাদেশ ভাগ বসালো শ্রীলঙ্কা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের। ১৯৯০ সালে ভারতের বিপক্ষে এক টেস্টেই নয়জন লঙ্কান ক্রিকেটার শূন্য রানে আউট হয়ে ফেরেন। টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে সেটাই ছিল প্রথম ম্যাচ যেখানে এমন লজ্জার রেকর্ডের শিকার হয় কোনো দল।

এর ১০ বছর পর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে একই লজ্জার রেকর্ডের শিকার হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এবার ২২ বছর পর বাংলাদেশ জায়গা করে নিলো সেই তালিকায়।

বিব্রতকর এই রেকর্ডের পথে প্রথম ইনিংসেই অর্ধেকের বেশি কাজ সেরে রাখে বাংলাদেশ। প্রথম ইনিংসে ছয় বাংলাদেশি ব্যাটসম্যান শূন্য রানে ফেরেন। দুই ওপেনার মাহমুদুল হাসান জয় ও তামিম ইকবালের পর প্রথম দিনে শূন্য রানে ফেরেন সাকিব আল হাসানও।

ম্যাচের দ্বিতীয় দিন মোসাদ্দেক হোসেন, খালেদ আহমেদ ও এবাদত হোসেনও ফেরেন শূন্য রানে। প্রথম ইনিংসে ছয় ডাকের শিকার বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংসেও দেখে তিনটি।

যার শুরু তামিম ইকবালের হাত ধরে। দ্বিতীয় ইনিংসে ডাকের মধ্য দিয়ে ৬৭ টেস্টের ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো জোড়া পেয়ার দেখেন তামিম। এরপর বাংলাদেশ অধিনায়কও ফেরেন শূন্য রানে। দ্বিতীয় ইনিংসের শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে খালেদ আহমেদ আসিথার বলে বোল্ড হলে লজ্জার রেকর্ডের ভাগীদার হয় বাংলাদেশ।

তবে এবারই প্রথম এত শূন্যের ম্যাচ নয় বাংলাদেশের জন্য। এর আগেও এক টেস্টে আট শূন্য দেখেছিল বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানরা। ২০১৮ সালে জ্যামাইকা টেস্টে বাংলাদেশের আট ব্যাটসম্যান শূন্য রানে আউট হয়েছিল।

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS