Mir cement
logo
  • ঢাকা সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ২৩ নভেম্বর ২০২১, ১৭:৩৬
আপডেট : ২৩ নভেম্বর ২০২১, ১৭:৫৪

মৃত্যুর পরেও বিতর্কে ম্যারাডোনা

মৃত্যুর পরেও বিতর্কে মারাদোনা
দিয়েগো মারাদোনা

আর দু’দিন পর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী দিয়েগো ম্যারাডোনার। গত বছর ২৫ নভেম্বর মারা গিয়েছেন কিংবদন্তি ফুটবলার। আর তার আগেই ম্যারাডোনা এক নতুন বিতর্কে। কিউবার এক মহিলা দাবি করলেন, তাঁকে ১৬ বছর বয়সে ধর্ষণ করেছিলেন ফুটবলের রাজপুত্র। এই বিতর্ক ঘিরে নতুন করে উত্তাল ফুটবল বিশ্ব।

ম্যাভিস আলভারেজ নামের ৩৭ বছরের ওই যুবতীর অভিযোগ, ২১ বছর আগে হাভানায় তাঁকে ধর্ষণ করেন ম্যারাডোনা। ১৬ বছর বয়সে ধর্ষিতা হওয়ায় তাঁর ছোটবেলা নষ্ট হয়ে গিয়েছিল বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

২০ বছর আগের ঘটনা হলেও আর্জেন্টিনার মিনিস্ট্রি অফ জাস্টিস কোর্টের দ্বারস্ত হয়েছেন মাভিস। ওই ঘটনা তদন্ত করে তাঁকে ন্যায় বিচার দেওয়া হোক, দাবি তুলেছেন তিনি। সোমবার এ নিয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করেছেন মাভিস। সাংবাদমাধ্যমের সামনে তিনি জানান, ম্যারাডোনার বয়স তখন ৪০ বছর। মাদকের নেশা ছাড়ানোর জন্য হাভানাতে একটি ক্লিনিকে থাকতেন দিয়েগো। সেখানেই আলভারেজকে ধর্ষণ করেন তিনি। আলভারেজ বলেন, ‘‘আমার মুখ বেঁধে ধর্ষণ করে ম্যারাডোনা। পাশের ঘরে আমার মা ছিল। আমার ছোটবেলাটা নষ্ট করে দিয়েছিল ও। সেই সময়ের কথা ভাবলে আজও আমি আঁতকে উঠি।’’

আলভারেজ জানান, তার পর থেকে বেশ কয়েক বছর তাঁর সঙ্গে সম্পর্ক রেখেছিলেন তিনি। তাঁর পরিবারের সেই সম্পর্কে আপত্তি থাকলেও মুখে কিছু বলতে পারেননি। কারণ কিউবা সরকারের সঙ্গে ভাল সম্পর্ক ছিল ফুটবল তারকার। এই বিষয়ে অবশ্য এখনও কিছু মন্তব্য করেনি কিউবা সরকার।

এই ঘটনার পরে প্রশ্ন উঠেছে, ম্যারাডোনার ম্যৃত্যুর পরে কেন ধর্ষণের অভিযোগ করলেন আলভারেজ। তার জবাবে তিনি বলেন, ‘‘যে সব মহিলারা এই ধরনের ঘটনার শিকার তাদের সাহায্যের জন্য মুখ খুলেছি। আমি যতটা পারব তাদের সাহায্য করব।’’ যদিও এই বিষয়ে ম্যারাডোনার আইনজীবী বা তাঁর পরিবারের তরফে কোনো মন্তব্য করা হয়নি।

টিএন/এসকে

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS