logo
  • ঢাকা শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ২১ ফাল্গুন ১৪২৭

স্পোর্টস ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ২৬ জানুয়ারি ২০২১, ১৩:৩৩
আপডেট : ২৬ জানুয়ারি ২০২১, ১৩:৩৭

ল্যাম্পার্ড: চেলসির নায়ক থেকে খল নায়ক

Frank_Lampard chelsea Stamford Bridge, rtv onlline, thomas tuchel, psg, rtv news
ফ্র্যাঙ্ক ল্যাম্পার্ড

ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেডের যুব দল থেকে মূল দলে এসে পেশাদার ক্যারিয়ার শুরু হয় ফ্র্যাঙ্ক ল্যাম্পার্ডের। লন্ডনের ছেলের লন্ডনের ক্লাব দিয়েই যাত্রা শুরু হয়। ১৯৯৫ সাল থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত খেলেছেন দলটিতে। মাঝে সোয়ানসি সিটির হয়ে লোনে খেলেছিলেন। ২০০২ সালে লন্ডনের আরেক দল চেলসির হয়ে অভিষেক হয় এ মিডফিল্ডারের। যাদের হাত ধরে দলটি ইতিহাস সৃষ্টি করে তাদের মধ্যে অন্যতম হচ্ছেন ল্যাম্পার্ড।

স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে ৪২৬ ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে ইংলিশ তারকার। ব্লুজদের জার্সিতে তিনটি প্রিমিয়ার লিগ জিতেছেন। চারটি এফএ কাপ, দুটি ফুটবল লিগ কাপ, দুটি এফ এ কমিউনিটি শিল্ড, একটি উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ ও একটি উয়েফা ইউরোপা লিগের শিরোপার স্বাদ গ্রহণ করেন।

২০০৪, ২০০৫ ও ২০০৯ সালের ক্লাবের পক্ষ থেকে বর্ষসেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন। তিনবার এই পুরস্কার কেউই নিজের করে নিতে পারেনি। রয়েছে অসংখ্য ব্যক্তিগত অর্জন।

২০১২ সালে প্রথম ও একমাত্র চ্যাম্পিয়নস শিরোপা জিতে চেলসি। দলকে ইউরোপের চ্যাম্পিয়ন করার অন্যতম কারিগর ছিলেন ল্যাম্পার্ড।

২০১৪ সালে ভক্তদের অবাক করে যোগ দেন ম্যানচেস্টার সিটিতে। তবে এই বিচ্ছেদ শেষ হয় ২০১৯ সালে এসে। স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে কোচ হিসেবে প্রত্যাবর্তন হয় তার।

ম্যানসিটিতে এক মৌসুম কাটিয়ে চলে যান মেজর সকার লিগে। আমেরিকান পেশাদার ফুটবল দল নিউ ইয়র্ক সিটিতেই ২০১৬ সালে অবসর নেন। তার আগে ১৯৯৯ থেকে ২০১৪ পর্যন্ত ইংল্যান্ড জাতীয় দলের হয়েও মাঠ মাতান।

২০১৮ সালে ইংলিশ দল ডার্বি কাউন্টির কোচ হিসেবে অভিষেক হয় তার। পরের বছরই চেলসির প্রধান কোচ হিসেবে দায়িত্ব পান ল্যাম্পার্ড। খেলোয়াড় হিসেবে যতটা উজ্জ্বল ছিলেন কোচ হিসেবে ততটা নিজেকে প্রকাশ করতে পারেননি।

চলতি মৌসুমে প্রিমিয়ার লিগের ১৯ ম্যাচের আটটিতে হারতে হয়েছে দলকে। ২৯ পয়েন্ট নিয়ে রয়েছে নবম স্থানে। এমন পরিস্থিতিতে ছাটাই করা হয়েছে তাকে।

গুঞ্জন রয়েছে, প্যারিস সেন্ট জার্মেইর (পিএসজি) সদ্য সাবেক জার্মান কোচ টমাস তুখেলকে নিয়োগ দিতে চলেছে চেলসি।

বিদায় বেলায় ল্যাম্পার্ড বিবৃতি দিয়েছেন। ৪২ বছর বয়সী ল্যাম্পার্ড বলেন, ‘চেলসির মতো দলের দায়িত্ব নিতে পারাটা সম্মানের। আমার জীবনের সবচেয়ে লম্বা সময়টা ক্লাবের সঙ্গেই ছিল। প্রথমেই আমি সমর্থকদের ধন্যবাদ জানাতে চাই। ১৮ মাস সবসময় তাদের কাছে পেয়েছি। আমি দায়িত্ব নেয়ার সময় জানতাম এটা খুব চ্যালেঞ্জিং। আমাদের অর্জনগুলো নিয়ে আমি আমি খুশি। সবচেয়ে গর্বের বিষয় হচ্ছে আমাদের অ্যাকাডেমির খেলোয়াড়রা মূল দলে সুযোগ পাচ্ছে।’

যাওয়ার আগে নিজের পরিকল্পনা অনুযায়ী মৌসুম শেষ না করতে পারাটার আক্ষেপও করেছেন তিনি।

‘আমি একটু হতাশ কারণ চলতি মৌসুমটা শেষ হবার আগেই আমাকে বরখাস্ত করা হয়েছে। যার কারণে পরিকল্পনা অনুযায়ী সামনের দিকে এগুতে পারিনি।’

ম্যানেজমেন্ট, কোচিং স্টাফ, খেলোয়াড়সহ সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে দলের প্রতি শুভেচ্ছাও জানিয়েছেন তিনি।

ওয়াই

RTV Drama
RTVPLUS