logo
  • ঢাকা সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ৪ মাঘ ১৪২৭

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ

পারিশ্রমিক নিয়ে লজ্জিত কোচ সালাউদ্দিন

Coach Salauddin is ashamed of his salary
জাতী দলের হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর সঙ্গে সালাউদ্দিন
চলতি বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে ‘ডি’ গ্রেডের একজন ক্রিকেটারের পারিশ্রমিক ধরা হয়েছে ৪ লাখ টাকা। আর একজন কোচের পারিশ্রমিক ধার্য করা হয়েছে মাত্র ৩ লাখ টাকা। কিন্তু কেন? প্রশ্ন দেশের সেরা কোচদের একজন মোহাম্মদ সালাউদ্দিনের।

যার হাত ধরে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) দুইবার শিরোপা এসেছে। এবার বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপেও তার দল গাজী গ্রুপ চট্টগ্রাম জায়গা করে নিয়েছে ফাইনালে, খেলছে সবচেয়ে ধারাবাহিক ক্রিকেট।

সব মিলে হতাশ সালাউদ্দিন। নিজেকে নিয়ে নয়, সবাইকে নিয়ে হতাশার কথা জানিয়েছেন তিনি।

‘আমি এখানে কোনো পারিশ্রমিক নিচ্ছি না। গাজী গ্রুপে আমি জব করি। কোচের পারিশ্রমিকের ব্যাপারে আমি খুব লজ্জিত। এদেশে কোনো মূল্যায়ন হয় কী না আমি জানি না। দেখেন, আমরা ‘ই’ গ্রেডের মানুষ। ‘ডি’ গ্রেডের একটা খেলোয়াড় যা পাচ্ছে তা কিন্তু একটা কোচও পাচ্ছে না।’

হতাশা থেকে কোচ সালাউদ্দিন বলেন, কাউকে এই পেশায় আসতে উদ্বুদ্ধ করবেন না আর।

‘আমি অন্যকে বলবো না তুমি এই পেশায় আসো। আমরা ‘ই’ গ্রেডের মানুষ, অ্যাসিস্ট্যান্ট কোচরা হয়তো ‘এফ’ গ্রেডের মানুষ। ট্রেইনার ‘জি’, ‘এইচ’ অথবা এমন হবে আরকি। আমার মনে হয় সঠিক মূল্যায়ন করা উচিত। আমাদের কোচদের মূল্যায়ন না করা মানে হচ্ছে টিমের প্রতি আমাদের কোনো ইমপ্যাক্ট নাই। যদি আপনি বলেন যে কোচদের অনেক ইমপ্যাক্ট থাকে প্লেয়ারদের ওপর। আমরা আসলে আছি শুধু একটা ম্যাচ চালিয়ে দিবো, একটা টুর্নামেন্ট চালিয়ে দিবো। এর বাইরে আমাদের আর কিছু করার নাই।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি সারাজীবনই চেয়েছি বাংলাদেশে যেন কোচেরা আসে, আরও প্লেয়ার আসুক যারা কোচিং করতে আসে। তারা যেন একটা ভালো স্ট্যাটাস নিয়ে বাঁচতে পারে। আমার কাছে মনে হয় এ ধরনের পারিশ্রমিকে কখনোই কোনো ছেলেকে বলবো না তোমরা কোচিংয়ে আসো।’

এমআর/এম 

RTV Drama
RTVPLUS