Mir cement
logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ৪ কার্তিক ১৪২৮

মার্কেটগুলোতে নারীদের উপচেপড়া ভিড় 

মার্কেটগুলোতে নারীদের উপচেপড়া ভিড় 
নারীদের উপচেপড়া ভিড় 

মেহেরপুর জেলার মার্কেটগুলোতে ক্রেতাদের ব্যাপক সমাগম শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) সকাল থেকে জেলা ও উপজেলা শহরে পোশাকের দোকানসহ ঈদ কেনাকাটায় ক্রেতাদের উপস্থিতি ব্যাপক দেখা গেছে।

এর মধ্যে প্রায় শতভাগ ক্রেতাই হচ্ছেন নারী ও শিশু। কঠোর বিধিনিষেধ তুলে নেয়ার প্রথম দিনে কেনাকাটা ও চলাফেরায় স্বাস্থ্যবিধির তেমন কোন বালাই নেই। ফলে করোনাভাইরাস সংক্রমণ বৃদ্ধির আশংকা দেখা দিয়েছে। সংক্রমণ বিস্তার ঠেকাতে স্বাস্থ্যবিধির কোন বিকল্প নেই বলে সতর্ক করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ। সচেতনতার মাধ্যমে মানানো না গেলে আইন প্রয়োগ করার কথা জানিয়েছে জেলা প্রশাসন।

সীমান্তবর্তী মেহেরপুর জেলায় করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় দুই সপ্তাহের কঠোর বিধিনিষেধের সময়সীমা শেষ হয় বুধবার (১৪ জুলাই) রাত ১২টা থেকে। বিধিনিষেধ বাস্তবায়নকারী সরকারি দপ্তরগুলোর তৎপরতা ও বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের সম্পৃক্ততায় কঠোরভাবেই পার হয়েছে গেল দুই সপ্তাহ। এর মধ্যেও সংক্রমণ বৃদ্ধি ও মৃত্যুর ঘটনা এখন নিত্যসঙ্গী। অচলাবস্থায় গ্রামীণ অর্থনীতি যাতে ভেঙ্গে না পড়ে সে বিবেচনায় বিধিনিষেধ প্রত্যাহারে সরকারের সিদ্ধান্তের প্রতি বেশিরভাগ মানুষের সমর্থন রয়েছে। তবে ব্যক্তিগত সচেতনতার অভাবে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির আশংকা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

মেহেরপুর জেলা শহর, কেদারগঞ্জ বাজার, গাংনী উপজেলা শহর ও বামন্দী বাজারসহ জেলার উল্লেখযোগ্য বাজারগুলোতে বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) সকাল থেকেই ক্রেতাদের ভিড়ে মুখরিত। এর মধ্যে নারী ক্রেতাদের সংখ্যা প্রায় শতভাগ। এদের সাথে আবার রয়েছে বিভিন্ন বয়সী শিশু। বেশিরভাগ নারী বোরখা পরা। কাজেই মাস্কের তেমন কোন ঝামেলা নেই। শিশুদের তেমন কারও নেই মাস্ক। মার্কেটগুলোতে গাদাগাদি অবস্থান করে কেনাকাটা করছেন ক্রেতারা। অপরদিকে রাস্তায় পথচারী ও ছোট ছোট যানবাহনে চলাচলের ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষিত।

জানতে চাইলে কয়েকজন দোকানী আরটিভি নিউজকে বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মানানোর সব চেষ্টা করা হচ্ছে। কিন্তু ক্রেতাদের অনেকে এ বিষয়ে উদাসীন।

মেহেরপুর শহরের বড় বাজার এলাকায় কেনাকাটা করতে আসা শৈলমারী গ্রামের গৃহবধূ মাজেদা বেগম আরটিভি নিউজকে বলেন বলেন, স্বামী বাইরে থাকেন তাই ছেলেমেয়েদের বায়না মেটাতে কেনাকাটা করতে এসেছি।

শিশুদের মুখে মাস্ক না থাকায় তারা করোনা আক্রান্ত হতে পারেন কী না? এমন প্রশ্নের উত্তরে সালমা আক্তার আরটিভি নিউজকে বলেন, শিশুরা মুখে মাস্ক বেশিক্ষণ রাখতে পারে না। তাছাড়া ছোট শিশুদের মাস্কও পাওয়া যায় না।

মেহেরপুর সিভিল সার্জন ডা. নাসির উদ্দিন আরটিভি নিউজকে বলেন, সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করতে হলে অবশ্যই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।

স্বাস্থ্যবিধি মানাতে প্রয়োজনে আইন প্রয়োগ করা হবে উল্লেখ করে মেহেরপুর জেলা প্রশাসক ড. মোহাম্মদ মুনছুর আলম খান আরটিভি নিউজকে বলেন, বিধিনিষেধ শিথিল করার মানে এই না যে ঘর থেকে বের হলেই স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে না। স্বাস্থ্যবিধি মানাতে দোকান মালিক, পরিবহন মালিক, ক্রেতাসহ সবার দায়িত্ব রয়েছে। আমরা মানুষকে সচেতন করছি এবং সবখানেই নজর রাখছি। এর পরেও যদি উপেক্ষিত হয় তাহলে আইন প্রয়োগ করা হবে।

জিএম

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS