Mir cement
logo
  • ঢাকা রোববার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ৯ কার্তিক ১৪২৮

প্রেসক্লাবের সিদ্ধান্তে যা বললেন বিএনপি নেতা আমান

বিএনপি নেতা আমান উল্লাহ আমান

জাতীয় প্রেসক্লাবে জিহাদ স্মৃতি পরিষদ, জিয়া পরিষদ এবং যেকোনও দলের রাজনৈতিক সমাবেশ ও কর্মসূচি ভবিষ্যতে বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত অবিলম্বে প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন ডাকসুরে সাবেক ভিপি এবং বিএনপির ঢাকা মহানগর উত্তরের আহ্বায়ক আমান উল্লাহ আমান।

বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) সকালে নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ আহ্বান জানান। ৯০’এর ডাকসু সর্বদলীয় ছাত্র ঐক্যের ব্যানারে এ সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমীনের পাঠানো বিবৃতিতে ‘ঔদ্ধত্যপূর্ণ ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত’ বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

আমান উল্লাহ আমান বলেন, গত ১০ অক্টোবর জেহাদ স্মৃতি সংসদের উদ্যোগে একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় ভিডিও কনফারেন্সে বক্তব্য দিয়েছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। তার বক্তব্য দেওয়ার প্রতিবাদে ১১ অক্টোবর একটি বিবৃতি দিয়েছেন জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমীন। ভিডিও কনফারেন্সে তারেক রহমানের সঙ্গে মতবিনিময় আইন বর্হিভূত শিরোনামে ফরিদা ইয়াসমীনের প্রদত্ত বিবৃতিটি ‘ঔদ্ধত্যপূর্ণ’ এবং সম্পূর্ণভাবে হীন রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত। আমরা জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতির এই ঘৃণ্য বিবৃতির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ফোনে কথা বলবেন, নাকি ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলবেন, এ নিয়ে কারও কোনো মাথা ব্যথার কারণ থাকতে পারে না। এটা একান্তই বিএনপির নিজস্ব দলীয় সিদ্ধান্তের ব্যাপার।

উল্লেখ্য, গতকাল বুধবার (১৩ অক্টোবর) জাতীয় প্রেস ক্লাব এলাকায় বিশৃঙ্খলা এড়াতে যে কোনো ধরনের রাজনৈতিক সমাবেশ ও কর্মসূচিতে বিধিনিষেধ আরোপ করেছে ক্লাবের ব্যবস্থাপনা কমিটি।

এ বিষয়ে জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন জানান, প্রেসক্লাব সাংবাদিকদের একটি সংগঠন। এখানে সাংবাদিকরা আসেন, ভিডিও এডিটিং করেন, নিউজ লেখেন, কেউ কেউ লাইব্রেরিতে বই পড়েন। রাজনৈতিক সংগঠনগুলোর বিশৃঙ্খলার কারণে প্রেসক্লাবের পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। তাই আপাতত কোনো রাজনৈতিক সমাবেশ বা কর্মসূচি করা যাবে না।

তিনি আরও বলেন, গত ১০ অক্টোবর একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছে। অডিটোরিয়ামে ধারণক্ষমতার বাহিরে হাজার হাজার লোক সমাগম করেছে। রাজনৈতিক সমাবেশ করার মতো অনেক জায়গা আছে। সে সব জায়গা বাদ দিয়ে তারা প্রেসক্লাবকে নিরাপদ মনে করে। রাজপথে এ সব সংগঠনের কোনো কর্মসূচি থাকে না, প্রেসক্লাব এলাকায় এসে শোরগোল সৃষ্টি করে।

আরএ/এসকে

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS