logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬

কম্পিউটার না থাকা সেই ছেলেটি এখন গুগলের প্রধান নির্বাহী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ২৬ জুন ২০১৯, ১৭:৫১
গুগল প্রধান নির্বাহী
সুন্দর পিচাই
ছোটবেলা তার হাতে কম্পিউটার তো দূরের ব্যাপার, একটি ফোনও ছিল না। আর এখন বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী তিনি। বুঝতে পারছেন, কার কথা বলছি? হ্যাঁ, ছোট বেলা কম্পিউটার না পাওয়া সেই ছেলেটি এখন গুগলের প্রধান নির্বাহী। তিনি হলেন সুন্দর পিচাই।

মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, গুগলের প্রধান নির্বাহী সুন্দর পিচাই ভারতের চেন্নাইয়ে বেড়ে উঠেছেন। সেখানে বলতে গেলে তার ফোন ব্যবহারেরই সুযোগ ছিল না, কম্পিউটার আর ইন্টারনেট তো অনেক পরের ব্যাপার।

পিচাইয়ের পরিবার যখন প্রথম ফোন কেনে তখন আশেপাশের মানুষজন এসে সেই ফোন দিয়ে বিভিন্ন জায়গায় কথা বলতো। পিচাই এক এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকারে জানিয়েছে, এটা সবার ব্যবহার উপযোগী একটা জিনিস হয়ে উঠেছিল। মানুষ ওই ফোন দিয়ে তাদের সন্তানদের সঙ্গে কথা বলতো। তখনই আমি প্রযুক্তির ক্ষমতা সম্পর্কে ধারণা পাই।

যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার আগ পর্যন্ত পিচাইয়ের নিজের কোনও কম্পিউটার ছিল না। বৃত্তি নিয়ে স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটিতে যাওয়ার পর তিনি কম্পিউটারের মালিক হন। এরপরের পুরোটাই ইতিহাস।

পিচাই স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন। এরপর ইউনিভার্সিটি অব পেনিসালভেনিয়া থেকে এমবিএ করেন। ২০০৪ সালে গুগলে যোগ দেয়ার আগে পিচাই অ্যাপ্লাইড ম্যাটেরিয়ালস এবং ম্যাকিঞ্জেতে কাজ করেন।

গুগলে বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করেছেন সুন্দর পিচাই। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি হলো- ক্রোম ব্রাউজারের প্রধান, গুগলের প্রোডাক্ট চিফ এবং অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম প্রধান। অবশেষে ২০১৫ সালে গুগলের প্রধান নির্বাহী হন তিনি।

যুক্তরাষ্ট্র এখনও সম্ভাবনাময় কিনা জিজ্ঞেস করা হলে পিচাই বলেন, আমি মনে করি যুক্তরাষ্ট্র হলো সম্ভাবনার দেশ। তবে এই বিষয়টি সত্যি প্রমাণ করতে আমাদের কঠোর পরিশ্রম করতে হবে। এজন্য অভিবাসীদের সফল হওয়ার সুযোগ দিতে হবে বলে মনে করেন তিনি।

পিচাই কংগ্রেসকে স্বপ্নবানদের সুযোগ এবং সুরক্ষা দিতে আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, আপনি যদি প্রযুক্তি শিল্প দেখেন, শীর্ষে থাকা বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠান অভিবাসীরা চালু করেছে। এজন্য তাদের সুযোগ দিতে হবে। তাহলেই সামনে এগিয়ে যাওয়া সম্ভব।

গুগলের প্রধান নির্বাহীর পদ পাওয়াকে জীবনের সবচেয়ে বড় সুযোগ বলে মনে করেন সুন্দর পিচাই। তবে এই পদ তিনি কখনোই চাননি বলে জানিয়েছেন। এমনকি গুগলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেজ এবং সার্গেই বিন যখন তাকে প্রধান নির্বাহীর দায়িত্ব নিতে বলেন তখন তিনি বিস্মিত হন।

গুগলের প্রধান নির্বাহী হিসেবে পিচাই এখন পর্যন্ত বেশকিছু চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছেন। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি হলো- ব্যক্তিগত গোপনীয়তা ইস্যু, জেন্ডার ইস্যু, ওয়াকআউট ইত্যাদি। তবে সবকিছু মিলিয়ে এখন পর্যন্ত বেশ সফলতার সঙ্গেই দায়িত্ব পালন করেছেন পিচাই।

ডি/এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়