Mir cement
logo
  • ঢাকা বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

শখের গল্প তুলে ধরেন জাহান আসিফ

শখের গল্প তুলে ধরেন জাহান আসিফ

অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী বাংলাদেশের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার তরুণ জাহান আসিফ। বাংলাদেশের নানা রকম ইস্যু নিয়ে মজার ভিডিও নির্মাণ করার জন্য ইউটিউবসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছেন তিনি। বিশেষ করে তরুণ প্রজন্মের কাছে জাহান আসিফ বর্তমানে একজন জনপ্রিয় ইউটিউবারের নাম। সেইসাথে অস্ট্রেলিয়ায় বাংলা কমিউনিটির কাছেও অধিক পরিচিত।

ছোটবেলা থেকেই একটু বেশিই চঞ্চল প্রকৃতির ছিলেন তিনি।এইচএসসি শেষ করার পর উচ্চশিক্ষা লাভের আশায় পাড়ি জমান অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে। সেখানে পড়াশুনার পাশাপাশি শুরু করেন ইউটিউবিং।সেই থেকে একজন ইউটিউবার হিসেবে পরিচিতি পান সবার কাছে।

অস্ট্রেলিয়াতে চাকরিরত অবস্থায় থেকেও হঠাৎ ইউটিউব কেনো? এই প্রশ্নের জবাবে আরটিভি নিউজকে জাহান বলেন, "আমার শুরুটা প্রায় ৪ বছর আগে, মিডিয়া নিয়ে পড়ালেখা করার কারণে স্বাভাবিকভাবেই এই মাধ্যমে কাজ করার আগ্রহ দিন দিন বাড়তে থাকে। কিন্তু অস্ট্রেলিয়াতে বসে বাংলাদেশের মিডিয়াতে কাজ করা প্রায় অসাধ্য।

তখন বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি প্রজেক্টের জন্য একটি ভিডিও বানাতে হয়, সেই সময়টাতে বিশ্বের আরো অনেক দেশের মতো বাংলাদেশেও ক্রমশ জনপ্রিয়তা লাভ করা ইউটিউবকেই একটা মাধ্যম এবং বাইরে থেকেও দেশের মিডিয়াতে কাজ করার একটি সেতুবন্ধন হিসেবে কাজে লাগানোর চিন্তাটা মাথায় আসে।

সাধারণত হালকা কমেডি এবং হাস্যরসের মধ্যদিয়েই এই জনপ্রিয় ইউটিউবার " Jahan Asif " নামের চ্যানেলটিতে তার ভিডিও নির্মাণ করে থাকেন। তার নির্মিত জনপ্রিয় কিছু ভিডিও হলো ‘‘বাংলাদেশের বিয়ে বাড়ির অবস্থা, What Australia know about Bangladesh, বাংলাদেশের বিভাগ কয়টি।’’ কিছুদিন আগে প্রচার হওয়া ''আমরা কি বাংলা বলতে পারি'' নামক ভিডিওটি ইউটিউব এবং ফেসবুক মিলিয়ে প্রায় চার মিলিয়ন ভিউ হয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই এই সাফল্যে উচ্ছ্বসিত এবং আনন্দিত তিনি। এরই মাঝে এই সময়ের জনপ্রিয় নাট্য নির্মাতা মাবরুর রশীদ বান্নাহ'র পরিচালনায় “ফ্রেন্ডস ভার্সেস চিটার নাটকে এবং প্রবীর রায় চৌধুরীর বেস্ট ফ্রেন্ড ৩’’ নাটকে অতিথি চরিত্রে অভিনয় করেছেন জাহান। আর এই নাটকগুলো অস্ট্রেলিয়াতে চিত্রায়িত হয়েছে। তার ভক্তদের জন্য এটিও অন্যরকম একটি চমক বলেই আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

জাহান বলেন, ২০১৫ সালের শেষের দিকে দর্শকের চাহিদা অনুযায়ী তিনি একের পর এক ভিডিও বানাতে থাকেন। দিনে দিনে তার ভিউজ বাড়তে থাকে। সেইসঙ্গে বাড়তে থাকে তার সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা। দর্শকরা তার ভিডিওতে ইতিবাচক মন্তব্য করতে থাকেন। ভালো সাড়া পেয়ে তিনি অনুপ্রাণিত হন। চলতে থাকে নিয়মিত ভিডিও আপলোড। বর্তমানে তার চ্যানেলে সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা ২ লাখ ১১ হাজার ছাড়িয়েছে। আর মোট চ্যানেল ভিউ হয়েছে ১৯,৫৮০,৭৮৬।

জাহান আসিফ জনান, তিনি ইউটিউবিং শুরু করেন এক রকমের শখের বসে। পেশা হিসেবে নয়। তিনি স্যোসাল মিডিয়ার ভাইরাল বিভিন্ন টপিক নিয়ে বিনোদনমূলক ভিডিও বানান। দর্শক তার ভিডিও দেখে আনন্দ পান। এতেই তিনি খুশি।

আসিফ আরও জানান, বাংলাদেশের পরিপ্রেক্ষিতে পেশাদার ইউটিউবারের সংখ্যা কম। ইদানিং বেড়েছে কন্টেন্ট ক্রিয়েটর।

কেউ ইউটিউবার হতে চাইলে পরামর্শ কী? জানতে চাইলে তিনি বলেন, অবশ্যই তাকে অধ্যবসায়ী হতে হবে, ধৈর্য ধরতে হবে। সময় নিয়ে যুগোপযোগী মানসম্মত কন্টেন্ট তৈরি করতে হবে। নিয়মিত কাজ করতে হবে ও ভিডিও আপলোড করতে হবে। ভিউ কম হলে কিংবা সাবস্ক্রাইবার না বাড়লে মন খারাপ করা যাবে না। যেহেতু এটা একটা উম্মুক্ত প্ল্যাটফর্ম সেহেতু বাজে মন্তব্যে প্রতিক্রিয়াশীল আচরণ করা যাবে না। সেটাও মেনে নিতে হবে। একই সাথে দরকার মনের জোর আর অদম্য সাহস।

দর্শকসহ সকলের দোয়া ও ভালোবাসা নিয়ে আরও এগিয়ে যেতে চান জনপ্রিয় তরুণ ইউটিউবার জাহান আসিফ।

এমএন

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS