• ঢাকা শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১
logo
আইইএলটিএস ছাড়াই যুক্তরাষ্ট্রে উচ্চশিক্ষার সুযোগ
এবার ১০০ হাউজ অব ডেলিগেটসের সম্মাননা পেল ডব্লিউইউএসটি
গত বছরের জানুয়ারিতে ৪০ জন সিনেটরের পক্ষ থেকে স্বীকৃতি পাবার পর এবার জেনারেল অ্যাসেম্বলিতে ভার্জিনিয়ার ১০০ জন হাউজ অব ডেলিগেটস বিশেষ সম্মাননা জানালো ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি, ডব্লিউইউএসটিকে।  গত ২৬ ফেব্রুয়ারি ফেয়ারফ্যাক্স কাউন্টির ডিস্ট্রিক্ট সেভেনের ডেলিগেটস ডেমোক্রেট দলের ক্যারেন কিইস গামাররা তার উপস্থাপনায় তুলে ধরেন এই বিশ্ববিদ্যালের কথা। জানান, চেয়ারম্যান ও চ্যান্সেলর ইঞ্জিনিয়ার আবু বকর হানিপ ও প্রেসিডেন্ট ড. হাসান কারাবার্কের নেতৃত্বে অসাধারণ গতিতে এগিয়ে চলছে ডব্লিউইউএসটি। যুক্তরাষ্ট্রে উচ্চ শিক্ষার বিস্তার এবং ভবিষ্যতের জন্য আশা জাগানিয়া অবদান রাখার জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ডেলিগেটস ক্যারেন কিইস গামাররা। তার উপস্থাপনা শেষ হতেই স্পিকার ডন স্কটের নেতৃত্বে ১০০ জন ডেলিগেটস ও গ্যালারিতে উপস্থিত অতিথিরা তুমুল করতালির মাধ্যমে সম্মননা জানান ডব্লিউইউএসটির প্রতিনিধি দলকে।  বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর ইঞ্জিনিয়ার আবু বকর হানিপ ও প্রেসিডেন্ট ড. হাসান কারাবার্কের নেতৃত্বে ১৩ সদস্যের এই প্রতিনিধি দলে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সিএফও ফারহানা হানিপ, আবুবকর হানিপ ও ফারহানা হানিপের জৈষ্ঠ্য কন্যা সাইবার সিকিউরিটির শিক্ষার্থী নাফিসা নওশিন, বিজনেস অব স্কুলের পরিচালক অধ্যাপক ড. মার্ক রবিনসন, স্কুল অব বিজনেস ফ্যাকাল্টি প্রফেসর সালমান ইলবাদর, জেনারেল এডুকেশন অ্যান্ড সেন্টার ফর স্টুডেন্ট সাকসেস এর অ্যাসিসট্যান্ট ডিরেক্টর ড. হুয়ান লি, মার্কেটিং ডিরেক্টর হোসে উর্তেগা, স্টুডেন্ট সাকসেস ও ক্যারিয়ার সার্ভিস ম্যানেজার রিচেল রোজ, ক্যারিয়ার সার্ভিস ও আইটি ম্যানেজার আমিত গুপ্তা। এছাড়া শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্টুডেন্ট গভর্নমেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট সেলিন ইগিত এবং ইনফরমেশন টেকনলজির মাস্টার্সের শিক্ষার্থী মো: নাঈম হাসান।  ডব্লিউইউএসটির উচ্চ শিক্ষা বিস্তার ও এগিয়ে চলার কথা অবগত আছেন ভার্জিনিয়ার ৪৮তম অ্যাটর্নি জেনারেল জেসন মিয়ারেস। তাই নিজের ব্যস্ত সময় থেকে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধি দলের জন্য সময় তুলে রেখেছিলেন আলাদা করে। দুপুর আড়াইটায় কমনওয়েলথ অব ভার্জিনিয়ার বারবারা জনস বিল্ডিংয়ে নিজ দপ্তরে ডব্লিউএসটি টিমকে আমন্ত্রণ জানান অ্যাটর্নি জেনারেল। বিশ্ববিদ্যালয়ের সব কার্যক্রম সম্পর্কে জানতে পেরে উৎসাহ প্রদান করেন এবং ধন্যবাদ জানান তিনি। এ সময় রিপাবলিকান দলের এই অ্যাটর্নি জেনারেলের হাতে একটি স্বারক তুলে দেয় ডব্লিউইউএসটির প্রতিনিধি দল। পরে ফটোসেশনের মাধ্যমে শেষ হয় এই বৈঠক।  এদিকে এশিয়ান কমিউনিটি নিয়ে বহু বছর ধরে সফলতার সঙ্গে ভার্জিনিয়ার রিচমন্ডে কাজ করে আসছে এমন চারটি সংগঠনের আয়োজনে একটি মিট অ্যান্ড গ্রিট অনুষ্ঠান ছিল সন্ধ্যায়। সেখানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভার্জিনিয়ার ৭৪তম গভর্নর রিপাবলিকান দলের গ্লেন ইয়ংকিন। সেইসঙ্গে উপস্থিত হয়েছিলেন বেশ কয়েকজন সিনেটর ও হাউজ অব ডেলিগেটস। ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির ১৩ সদস্যের দলটিও আমন্ত্রিত ছিলো বিশেষভাবে। ভার্জিনিয়ার শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নয়ন বিষয়ক গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন কথা উঠে আসে গভর্নর গ্লেন ইয়ংকিনের বক্তৃতায়। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো নতুন নতুন প্রোগ্রামের মাধ্যমে ইন্ডাস্ট্রিতে কীভাবে দারুণ ভূমিকা রাখছে সেসব উঠে আসে তার কথায়।  গভর্নরের কথা ধরে উদাহরণ হিসেবে ডব্লিউইউএসটির সফলতার কথা উঠে আসে ডিস্ট্রিক সেভেনের ডেলিগেটস ক্যারেন কিইসের কথায়।  ডব্লিউইউএসটির কার্যক্রম নিয়ে অবগত আছেন জানিয়ে নিজের স্টেটে শিক্ষা সেবায় অসাধারণ ভূমিকা রাখায় ইঞ্জিনিয়ার আবু বকর হানিপ ও প্রেসিডেন্ট ড. হাসান কারাবার্ককে সাধুবাদ জানান গভর্নর গ্লেন ইয়ংকিন। সাদরে গ্রহণ করেন ডব্লিউইএসটির স্বারক। সেইসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের সফলতা কামনা করেন গভর্নর। ডিনারের মধ্য দিয়ে শেষ হয় এই আয়োজন। তবে এমন সম্মাননা পাবার দিনটিকে সঠিক পথে চলার স্বীকৃতি হিসেবে ধরে নিয়ে নতুন উদ্যমে পথচলার উৎসাহ উদ্দীপনা হিসেবে নিয়ে রিচমন্ড থেকে ভার্জিনিয়ায় ফিরে আসে ডব্লিউইএসটি টিম।  ২০০৮ সালে প্রতিষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয়টি ২০২০ সালের অক্টোবর থেকে ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশি-আমেরিকান উদ্যোক্তা ইঞ্জিনিয়ার আবু বকর হানিপের ব্যবস্থাপনা ও নেতৃত্বে পরিচালিত হচ্ছে। তিনি নতুন দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষণ ও পরিচালন পদ্ধতিতে আসে ব্যাপক পরিবর্তন। ঘটেছে দ্রুত প্রসার, শিক্ষার্থীদের কাছে হয়ে ওঠে জনপ্রিয়। তিন বছরের ব্যবধানে মাত্র ৩০০ থেকে বর্তমানে শিক্ষার্থীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৭০০।  এখানে তথ্য-প্রযুক্তি, সাইবার সিকিউরিটি ও ব্যবসায়িক প্রশাসনের উপর ব্যাচেলর ও মাস্টার্স কোর্সে বর্তমানে লেখাপড়া করছে বিশ্বের ১২১ দেশের শিক্ষার্থী। আর এ সবকিছুর বিবেচনায় জেনারেল অ্যাসেম্বলিতে টানা দ্বিতীয় বছরে মিলেছে এমন সম্মাননা।  
এডুকেশন এক্সপোর জমকালো আয়োজনে আত্মপ্রকাশ করছে এমএইচ গ্লোবাল গ্রুপ
বাংলাদেশিদের জন্যে স্কলারশিপসহ সুবর্ণ সুযোগ দিলো যুক্তরাজ্য
আইইএলটিএস ছাড়াই যুক্তরাষ্ট্রে ফেলোশিপে মাস্টার্সের সুযোগ
উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে উচ্চশিক্ষায় গুরুত্ব দিতে হবে: ইউজিসি চেয়ারম্যান