logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬

শেখ হাসিনার আগমন উপলক্ষে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের কর্মী সমাবেশ

কামরুজ্জামান হেলাল, মিশিগান প্রতিনিধি
|  ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৮:১১
শেখ হাসিনা, আওয়ামী লীগ
ছবি: সংগৃহীত
জাতিসংঘের ৭৪তম অধিবেশনে যোগদান করতে আগামী ২২ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী  শেখ হাসিনার আগমন উপলক্ষে কর্মী সমাবেশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ ও আওয়ামী পরিবার।

স্থানীয় সময় গত রোববার সন্ধ্যায় নিউইয়র্ক শহরের জ্যাকসন হাইটসে পালকি পার্টি সেন্টারে এই কর্মী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক মিসবাহ আহমেদের সভাপতিত্বে এবং শিল্প ও বাণিজ্য সম্পাদক ফরিদ আলমের পরিচালনায় এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সংগঠনের আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট শাহ মো. বখতিয়ার। মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের অন্যতম উপদেষ্টা ও বাকসুর সাবেক ভিপি ড. প্রদীপ রঞ্জন কর।

এসময় যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা হাজী সফিকুল আলম, এম এ জলিল, তোফায়েল চৌধুরী ও হাকিকুল ইসলাম খোকন, যুগ্ম সম্পাদক আইরিন পারভিন, সাংগঠনিক সম্পাদক চন্দন দত্ত, শিক্ষা সম্পাদক এমএ করিম জাহাঙ্গীর, নির্বাহী সদস্য হিন্দাল কাদির বাপ্পা, শরিফ কামরুল হীরা, ইলিয়ার রহমান, আশরাফ মাসুক, সিরাজুল ইসলাম, লিটু গাজী, সাবু মিয়া, সাখাওয়াত হোসেন চঞ্চল, শেখ হাসিনা মঞ্চের সভাপতি জালালউদ্দিন জলিল ও সাধারণ সম্পাদক কায়কোবাদ খান, যুক্তরাষ্ট্র মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী অধ্যাপক মমতাজ শাহনাজ, নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি একেএম আলমগীরসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

প্রদীপ রঞ্জন কর বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। তিনি হচ্ছেন একমাত্র নারী, যিনি গণতান্ত্রিক বিশ্বে বিস্ময় সৃষ্টি করে চতুর্থ মেয়াদে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন। তিনি জাতিসংঘে আসছেন অভিজ্ঞ বিশ্বনেতা এবং মানবতার মা হিসেবে।

তিনি আরও বলেন, তার এই মর্যাদাকে সমুন্নত রাখতে আওয়ামী পরিবারের প্রতিটি নেতাকর্মীকে অতন্দ্র প্রহরীর ভূমিকায় অবতীর্ণ হতে হবে। নেত্রী শেখ হাসিনা নিউইয়র্কে অবস্থানের সময় সবাইকে দিনরাত সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।

সম্মেলনের শুরুতে ইমাম কাজী কায়্যূম পরিচালিত দোয়া মাহফিলে শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করা হয়। সকলে এক মিনিট দাঁড়িয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ সব শহিদের আত্মার প্রতি শ্রদ্ধা জানান। এরপর জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশিত হয়।

কে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়