logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০১৯, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬

দশ বছর বয়সেই বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ছে এই বিস্ময় বালক!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ০৬ জুলাই ২০১৯, ১৭:৫১ | আপডেট : ০৬ জুলাই ২০১৯, ১৮:৪৪
কাইরান কাজী
যে বয়সে স্কুলের বারান্দায় দাপিয়ে বেড়ানোর কথা সে বয়সেই বিশ্ববিদ্যালয়ের গণ্ডি ছুঁয়ে ফেলা! এমআইটিতে মাস্টার্স আর ক্যামব্রিজে পিএইচডি করার জন্য আগ্রহ আছে যার। কাজ শুরু করেছেন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ইন্টেলের সঙ্গেও। বলছি যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় বাস করা ১০ বছর বয়সী কাইরান কাজীর কথা। পড়াশোনার পাশাপাশি আগ্রহ আছে অন্যান্য বিষয়েও।

কাইরান কাজীর বয়স ১০ বছর। বাবা-মায়ের সঙ্গে থাকেন যুক্তরাষ্ট্রে। পড়াশোনা করছেন ক্যালিফোর্নিয়ার লস পাসিটোস কলেজে। তার বয়সীরা যখন ক্লাস ফোরে পড়ছে; তখন বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে ক্লাস করছে কাইরান। পড়ছে গণিত, রসায়ন, মনোবিজ্ঞানের মতো কঠিন সব বিষয়ে। ভবিষ্যতে পড়তে চায় বিশ্বখ্যাত এমআইটি ও ক্যামব্রিজের মতো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে।

তিন বছর বয়স থেকে বিশ্বপরিস্থিতি কিংবা মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নিয়ে কাইরানের বিশ্লেষণ মানুষকে অবাক করতো।

লেখাপড়ার পাশাপাশি আগ্রহ আছে মার্শাল আর্টস, পিয়ানো বাজানো ও ভিডিও গেমসে। দুরন্তপনায় কম যায় না কাইরান। বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে পড়লেও নিজ বয়সীদের সঙ্গে খেলতেই বেশি ভালোবাসে সে। কাইরানের মা বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত জুলিয়া চৌধুরী ও বাবা মুস্তাহিদ কাজী।

গতানুগতিক পেশার বাইরে গিয়ে উদ্ভাবক হতে চাওয়া কাইরান কাজ করছে ইন্টেলের আর্টিফিসিয়াল ইনটিলিজেন্স শাখায়। এরই মধ্যে রপ্ত করেছে কম্পিউটার কোডিং ল্যাংগুয়েজ।

বুদ্ধিবৃত্তিক পরীক্ষায় যার গড় নম্বর ৯৯.৯৯ শতাংশ। নাম উঠেছে ডেভিডসন ইনস্টিটিউট ইয়ং স্কলারের তালিকায়। শিখছে বাংলা ও মান্দারিন ভাষা।

রোহিঙ্গাদের দুঃখ কষ্ট ছুঁয়ে যায় শিশু কাইরানকে। বাংলাদেশের ভূমিকায় প্রশংসা ঝরে তার কণ্ঠে। সমাজের পিছিয়ে পড়া ও সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য কাজ করতে চায়, বিস্ময় বালক কাইরান কাজী।

পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়