logo
  • ঢাকা রবিবার, ২৫ আগস্ট ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬

আপনার সামান্য সাহায্য ফারহাতুলের মুখে আবারও হাসি ফোটাতে পারে

আরটিভি অনলাইন ডেস্ক
|  ০৪ জুন ২০১৯, ১৭:৩৪
ফারহাতুল মাহমুদ হাসানের বয়স মাত্র ৯ বছর ৩ মাস। মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের ছাত্র। এই বয়সেই তার শরীরে আস্তানা গেড়েছে ই-বিটা থ্যালাসেমিয়া। শুধু তা–ই নয়, এর সঙ্গে যোগ হয়েছে হেপাটাইটিস সি ভাইরাস ও ব্লাড ক্যানসার। তিনটি জটিল রোগের আস্তানা গুঁড়িয়ে দিতে ফারহাতুলকে সব সময় সংগ্রাম করতে হচ্ছে।

bestelectronics
একটিকে একটু দুর্বল করে তো আরেকটি আবার সবল হয়ে শরীরে ফিরে আসে। সব মিলিয়ে ফারহাতুল এখন ক্লান্ত।

ফারহাতুলের বাবা সাদেকুল ইসলাম এবং মা শিউলি আক্তার ছেলেকে একটু ভালো রাখতে চেষ্টার কোনো কমতি করছেন না। ছেলের চিকিৎসার জন্য টাকার সংস্থান করতে গিয়ে রংপুরের জমি বিক্রি করেছেন। সরকারি–বেসরকারি বিভিন্ন ব্যাংক-সংস্থা, বন্ধু-আত্মীয় সবার সহযোগিতায় এ পর্যন্ত ছেলের চিকিৎসা চালিয়ে এসেছেন। কিন্তু ছেলের চিকিৎসার জন্য আরও টাকা দরকার। তাই ছেলের জীবন বাঁচাতে দেশের জনগণের কাছে হাত পাততে বাধ্য হয়েছেন বাবা-মা।

সাদেকুল ইসলাম ব্যবসা করেন। ছেলেকে নিয়ে দেশ-বিদেশের হাসপাতালেই তাকে কাটাতে হয় অনেকটা সময়। বর্তমানে প্রতিদিন ছেলের জন্য লাগে প্রায় দশ হাজার টাকার ওষুধ। ফারহাতুলের যখন চার বছর বয়স, তখন থ্যালাসেমিয়া ধরা পড়ে। এরপর আস্তে আস্তে অন্য দুটো ধরা পড়ে। শুরু থেকে এখন পর্যন্ত ফারহাতুলের পেছনে খরচ হয়ে গেছে প্রায় দুই কোটি বিশ লক্ষ টাকা। ছেলেকে নিয়ে এ পর্যন্ত চেন্নাই গিয়েছেন ছয়বার। আর বাংলাদেশে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে শুরু করে কত হাসপাতাল যে ঘুরেছেন, এর কোনো হিসাব নেই। যখন যে হাসপাতালে গেছেন, সেখানকার চিকিৎসকদের দেওয়া ব্যবস্থাপত্র, সুপারিশ, রিপোর্ট—সব যত্ন করে রেখে দিয়েছেন সাদেকুল।

ফারহাতুলের চিকিৎসার বিষয়ে সাদেকুল বললেন, এই মুহূর্তে যদি ২০ লাখ টাকা সহায়তা পাওয়া যায়, তাহলে হয়তো ছেলের মুখে হাসি ফিরিয়ে আনতে পারব। তাই চিকিৎসকের পরামর্শে গত সপ্তাহে ফারহাতুলকে নেয়া হয়েছে আবার চেন্নায়ে। ছেলের চিকিৎসার জন্য তার বাবা-মা সমাজের বিত্তবানদের প্রতি আবেদন জানিয়েছেন।   

ফারহাতুলের চিকিৎসায় কেউ সহায়তা করতে চাইলে:

মো. সাদেকুল ইসলাম, সঞ্চয়ী হিসাব-১২৫১১, ইসলামী ব্যাংক, রামপুরা শাখা অথবা সঞ্চয়ী হিসাব-১৯২২১০৭০০১০৪৪০, প্রাইম ব্যাংক, বনশ্রী শাখায় পাঠাতে পারেন। এ ছাড়া ০১৮৬৪২৯১৩২৭ অথবা ০১৮৬৪২৯১৩২৮ বিকাশ নম্বরেও পাঠানো যাবে।

এমকে

bestelectronics bestelectronics
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়