• ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১
logo

ইহরাম অবস্থায় যে ধরনের পোশাক পরা নিষেধ

ধর্ম ডেস্ক

  ০৬ জুন ২০২৪, ১০:০৮
ইহরাম
ছবি: সংগৃহীত

ইহরাম আরবি শব্দ। ইহরাম অর্থ নিজেকে আবদ্ধ করা, কোনো বস্তুকে হারাম করা ইত্যাদি। হজ ও ওমরাহ করতে ইচ্ছুক ব্যক্তি যখন হজ বা ওমরাহ কিংবা উভয়টি পালনের উদ্দেশ্যে তালবিয়া পাঠ করে, তখন তার ওপর কতিপয় হালাল ও জায়েজ বস্তুও হারাম হয়ে যায়। এ কারণেই এ প্রক্রিয়াটিকে ইহরাম বলা হয়। হজ-ওমরাহর জন্য গুরুত্বপূর্ণ ফরজ ইহরাম।

ইহরামের সময় পুরুষেরা সেলাইবিহীন পোশাক পরিধান করেন। আর নারীরা যেকোনো স্বাভাবিক ঢিলেঢালা পোশাক পরে থাকেন। ইহরামের জন্য পোশাকের ভিন্নতা নেই। ইহরামকারীকে মুহরিম বলা হয়।

ইহরাম অবস্থায় পুরুষের জন্য সেলাই করা পোশাক ও মাথায় টুপি দেওয়া নিষেধ। এ বিষয়ে হাদিসে স্পষ্ট নির্দেশনা রয়েছে। হজরত ইবনে ওমর (রা.) বর্ণনা করেন, এক লোক দাঁড়িয়ে রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে জিজ্ঞাসা করলেন, হে আল্লাহর রাসুল (সা.) আপনি আমাদেরকে ইহরাম অবস্থায় কী ধরনের পোশাক পরিধান করার নির্দেশ দেন?

রাসুলুল্লাহ (সা.) বললেন, ‘জামা, পাজামা, টুপি, পাগড়ি ও মোজা পরিধান করবে না। তবে কোনো লোকের জুতা না থাকলে সে চামড়ার মোজা পরিধান করবে; যা পায়ের গোছার নিচে থাকে। জাফরান ও ওয়ারাস রঙের কোনো পোশাক তোমরা পরিধান করবে না। ইহরামকারী নারীরা মুখ ঢাকবে না এবং হাতে দস্তানা (মোজা) পরিধান করবে না। (সহিহ বুখারি, ১৪৫০)

মন্তব্য করুন

  • অন্যান্য এর পাঠক প্রিয়
আরও পড়ুন
ভালো থাকতে প্রতিদিন এই সহজ ব্যায়ামগুলো করুন
যে মায়ের বুক খালি হলো সেই শুন্যতা কি পূরণ করতে পারব: মেহজাবীন
আর্জেন্টিনার জয়ে মেহজাবীনের আনন্দ উদযাপন
রাতে শাবিপ্রবিতে মিছিল, ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ