• ঢাকা সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১
logo

রমজান মাসে ৪ বিশেষ আমল

আরটিভি নিউজ

  ২৮ মার্চ ২০২৪, ১২:৩৯
রমজান মাস
ছবি : সংগৃহীত

রহমত, মাগফিরাত এবং নাজাতের মাস হলো রমজান। অন্য সব মাস থেকে এ মাসটি অধিক ফজিলতপূর্ণ। রমজান মাসের একটি নফল ইবাদত অন্য মাসের একটি ফরজ ইবাদতের সমান। মাসটিতে রয়েছে চারটি আমল বিশেষ।

রমজান মাস প্রসঙ্গে পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হচ্ছে, ‘হে ঈমানদারগণ, তোমাদের ওপর রোজা ফরজ করা হয়েছে, যেভাবে ফরজ করা হয়েছিল তোমাদের পূর্ববর্তী লোকদের ওপর, যেন তোমরা পরহেজগারি অর্জন করতে পার।’

রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘মাহে রমজানের প্রতি রাতেই একজন ফেরেশতা ঘোষণা করতে থাকেন: ‘হে পুণ্য অন্বেষণকারী, অগ্রসর হও। হে পাপাচারী, থামো এবং চোখ খোলো।’ তিনি আবার ঘোষণা করেন ‘ক্ষমাপ্রার্থীকে ক্ষমা করা হবে। অনুতপ্তের অনুতাপ গ্রহণ করা হবে। প্রার্থনাকারীর প্রার্থনা কবুল করা হবে।’

রমজান মাসে চারটি আমল বিশেষ গুরুত্বের সঙ্গে করার নির্দেশ দিয়েছেন রাসুল (সা.)।

হজরত সালমান (রা.) থেকে বর্ণিত-রাসুলুল্লাহ (সা.) ইরশাদ করেন, এ মাসে তোমরা চারটি কাজ বেশি পরিমাণে করো। দুটি কাজ এমন, যা দিয়ে তোমরা তোমাদের প্রভুকে সন্তুষ্ট করবে। আর দুটি কাজ এমন, যা তোমাদের নিজেদেরই খুব প্রয়োজন।

যে দুটি কাজ দিয়ে তোমরা তোমাদের প্রভুর সন্তুষ্টি অর্জন করবে। তা হলো-

১. কালেমায়ে তাইয়্যিবার সাক্ষ্যপ্রদান অর্থাৎ আল্লাহ তায়ালার একত্ববাদের সাক্ষ্যদান।

২. আল্লাহর নিকট ইস্তেগফার করা অর্থাৎ নিজের গুনাহের জন্য তার কাছে ক্ষমাপ্রার্থনা করা।

আর যে দুটি বিষয় তোমাদের নিজেদেরই অধিক প্রয়োজন তা হলো-

১. তোমরা আল্লাহ তায়ালার কাছে জান্নাত প্রার্থনা করবে।

২. আর জাহান্নাম থেকে আশ্রয় চাইবে (ইবনে খুজাইমা : হাদিস ১৮৮৭; বায়হাকি : হাদিস ৩৬০৮)।

মন্তব্য করুন

daraz
  • অন্যান্য এর পাঠক প্রিয়
আরও পড়ুন
আগে ইকামত না দিলে কি নামাজ শুদ্ধ হবে?
আন্তর্জাতিক হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায় প্রথম বাংলাদেশের আবু রায়হান
‘আলোকিত কোরআন’ চ্যাম্পিয়ন হাফেজ ইসমাইল
‘আরটিভি আলোকিত কোরআন ইউএসএ’ গ্রান্ড ফিনালে অনুষ্ঠিত
X
Fresh