logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

কাপড়ে কতক্ষণ বাঁচে করোনাভাইরাস?

কাপড়ে কতক্ষণ বাঁচে করোনাভাইরাস?
প্রতিকী ছবি
কোভিড-19 করোনাভাইরাস থেকে বাঁচতে সতর্কতার কোনো বিকল্প নেই। এটি একজনের থেকে আরেকজনের শরীরে ছড়িয়ে পড়তে পারে অনায়াসেই। তাই ভাইরাস থেকে বাঁচতে সারা বিশ্বের মানুষ আজ লকডাউনে। গবেষণায় দেখা গেছে, এটি প্লাস্টিক এবং ধাতব বস্তুর উপর দীর্ঘ সময় বেঁচে থাকতে পারে।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে জামা-কাপড়েও কী বেঁচে থাকে এই ভাইরাস? থাকলেও এটি কী কাপড় থেকে ছড়াতে পারে?

রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্র (সিডিসি) জনিয়েছে, করোনা ভাইরাসটি সাধারণত সংক্রমিত ব্যক্তির সংস্পর্শে বা হাঁচি-কাশি থেকে ছড়ায়। এছাড়া এটি সংক্রমিত ব্যক্তির স্পর্শ করা কোনো বস্তু থেকেও ছড়াতে পারে।

সিডিসির গাইডলাইনে বলা হচ্ছে, এই ভাইরাস বিভিন্ন বস্তুতে কয়েক ঘণ্টাসহ কয়েক দিন বেঁচে থাকতে পারে। এটি পোশাকে কয়েক ঘণ্টাও বেঁচে থাকতে পারে।

যুক্তরাষ্ট্রের মন্টানার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব অ্যালার্জি এবং সংক্রামক রোগের (এনআইএআইডি) গবেষকরা জানান, তারা গবেষণায় দেখতে পেয়েছেন, করোনাভাইরাস কার্ড বোর্ড, প্লাস্টিক, স্টিল, কাচের উপরে কয়েক দিন বেঁচে থাকতে পারে। তবে কাপড়ের বিষয়ে এখনও কোনো তথ্য নেই তাদের কাছে।

যুক্তরাষ্ট্রের জনস হপকিনস সেন্টার ফর হেলথ সিকিউরিটির জ্যেষ্ঠ স্কলার ও সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ এমমেশ অ্যা আদালজা বলেন, ‘আমার মনে হয়, করোনাভাইরাস বেশ কয়েক ঘণ্টা কাপড়ের উপর বেঁচে থাকতে পারে। এটি আসলে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে পরিবেশের উপর নির্ভর করে। তাপমাত্রা ও আর্দ্রতা ভাইরাস বৃদ্ধিকে প্রভাবিত করে।’

তবে কাপড় যে করোনা ভাইরাস ছড়ানোর গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম এমনটি বিশ্বাস করেন না এই বিশেষজ্ঞ।

কিন্তু কথা হচ্ছে, ঝুঁকি নেয়ার থেকে সর্তক থাকাই ভালো। সুতরাং পোশাকের বিষয়টি যখন আসে তখন ভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি কমাতে আপনার কিছু করার থাকে।

যেমন যদি আপনার পরিবারের কেউ করোনায়ে আক্রান্ত হন, তাহলে সাধারণত নিজের পোশাক পরিষ্কার রাখতে হবে। বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর আপনার পোশাকটি সাবান পানি দিয়ে ধুয়ে পরিষ্কার করে নেয়া সবচেয়ে ভালো কাজ।

এছাড়া করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে থাকা কাপড় ভালো করে পরিষ্কার করে নিতে হবে। 

বাড়িতে থাকলেও দিনে অন্তত দু’বার জামা-কাপড় বদলানো উচিত। ব্যবহৃত পোশাকে সবসময়ই নানা ধরনের ব্যাকটেরিয়া ও ভাইরাস এসে জমে। এর ফলে বেড়ে যায় সংক্রমণের আশঙ্কা। সূত্র: হেলথ ডটকম

এস

RTVPLUS