logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০২ এপ্রিল ২০২০, ১৯ চৈত্র ১৪২৬

করোনা আপডেট

  •     গত ২৪ ঘণ্টায় স্পেনে মৃত্যু ৯৫০, মোট ১০ হাজার, নতুন আক্রান্ত ৮ হাজারের বেশি: বৃহস্পতিবার জানিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। ভারতে আক্রান্ত ২ হাজার ছুঁই ছুঁই, একদিনে ৯ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ১৩১, মোট মৃত্যু: এনডিটিভি। বিশ্বজুড়ে একদিনে এক লাখের বেশি আক্রান্ত, ৬ হাজার মৃত্যু, এই মৃত্যুর অর্ধেকের বেশিই স্পেন, ইতালি ও যুক্তরাষ্ট্রে: বিবিসি। গত ২৪ ঘণ্টায় বাংলাদেশে দুজন ব্যক্তি আক্রান্ত হয়েছেন: আইইডিসিআর। যুক্তরাজ্যে ১ দিনে শুধু বুধবার ৫৬২ জনের মৃত্যু হয়েছে, আক্রান্ত ৪৩২৪, মোট মৃতের সংখ্যা ২৩৫২, মোট আক্রান্ত ২৯৪৭৪ জন: এএফপি। গত ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি মৃত্যু দেখল আমেরিকা- ৮৬৫ জন, মোট মৃত্যু ৩ হাজার ৮৭৩, আক্রান্তের পরিসংখ্যানেও প্রথম স্থানে আমেরিকা- এক লাখ ৭৫ হাজার: ডয়েচে ভেলে। ইউরোপে মৃতের সংখ্যা ৩০ হাজার ছাড়িয়েছে, শুধু স্পেন ও ইতালিতেই মৃত্যু ২০ হাজারের বেশি, ইতালিতে ১২৪২৮, যুক্তরাজ্যে ১৭শ ছাড়িয়েছে: বিবিসি।

প্রতি শতাব্দীর ২০ সালে আসে ভয়ঙ্কর মহামারী!

লাইফস্টাইল ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ২২ মার্চ ২০২০, ১৭:০০
করোনাভাইরাস, শতাব্দী, ভয়ঙ্কর মহামারী
প্রতীকী ছবি। সংগৃহীত।

করোনাভাইরাসের প্রকোপে কাঁপছে গোটা বিশ্ব। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা WHO করোনাকে ‘মহামারির চেয়েও ভয়ঙ্কর’ বলেছে। প্রতিদিন হু হু করে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা।

তবে মহামারীর এই ঘটনা এবার প্রথম নয়। দেখা যাচ্ছে প্রতি শতাব্দীতে একবার করে বিভিন্ন মহামারী মারাত্মকভাবে আঘাত হেনেছে। প্রত্যেক শতাব্দীর ২০ সালে ফিরে আসে ভয়ঙ্কর সব মহামারী। আর কেড়ে নেয় হাজার হাজার মানুষের প্রাণ।

১৯২০ সাল

২০২০ সালের আগে ১৯২০ সালে ‘স্প্যানিশ ফ্লু’র দাপটে মৃত্যু হয় সারা বিশ্বের প্রায় ১ কোটি ৭০ লাখ মানুষের। এই মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন প্রায় ৫০ কোটি মানুষ।

১৮২০ সাল

১৮২০ সালে মহামারি ছিল কলেরা। এই কলেরায় মূলত আর্থিকভাবে দুর্বল মানুষের মৃত্যুর হার সবচেয়ে বেশি ছিল। ভারতীয় উপমহাদেশে বসবাসকারী ইউরোপিয়ানদের উপর সে সময় কলেরা খুব বেশি প্রভাব ফেলতে পারেনি। মূলত বন্যার পর পানিবাহিত পেটের অসুখে সে সময় প্রাণ হারান হাজার হাজার মানুষ।

১৭২০ সাল

১৭২০ সালে ফ্রান্সের মার্সেইতে প্রাদুর্ভাব ঘটেছিল প্লেগ রোগের। এই শহরে সে সময় মাত্র দু বছরের ব্যবধানে মৃত্যু হয় প্রায় ৫০ হাজার মানুষের। সারা বিশ্বের সে সময় প্রায় ১০ লক্ষ মানুষের প্রাণ কেড়েছিল প্লেগ।

চিকিৎসা ব্যবস্থা বর্তমানে অনেক উন্নত। উন্নত হয়েছে যোগাযোগ ব্যবস্থাও। আধুনিক চিকিৎসা বিজ্ঞানের সহায়তায় হয়তো করোনাভাইরাসের সংক্রমণকে রুখে দেওয়া যাবে। তবে ১০০ বছর পর পর কোনও না কোনও মহামারীর ফিরে আসার পেছনে কোনও কারণ কি এ নিয়ে মানুষের মনে এখন কৌতূহল।

জিএ  

corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ৫৬ ২৬
বিশ্ব ৯৬২৯৭৭ ২০২৯৩৫ ৪৯১৮০
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • লাইফস্টাইল এর সর্বশেষ
  • লাইফস্টাইল এর পাঠক প্রিয়