logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭

লাইফস্টাইল ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১২:১০
আপডেট : ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৩:০৫

গরম পানি পান করার উপকারিতা জেনে নিন

গরম পানি পান করার উপকারিতা জেনে নিন
ফাইল ছবি

আমরা অনেকেই জানি না, ঠাণ্ডা নাকি গরম পানি পান করা স্বাস্থ্যের জন্য বেশি উপকারী। আমরা বেশি ভাগ সময় ঠাণ্ডা পানি পান করে থাকি। তবে গরম পানি পান করা যে আমাদের শরীরের জন্য কতটা উপকারী, তা জানলে অবাক না হয়ে উপায় নেই। ঠাণ্ডা পানির পরিবর্তে উষ্ণ পানি পান করলে আপনি পেতে পারেন ভালো ফল।

চিকিৎসকদের মতে, সুস্থ শরীরের জন্য প্রতিদিন পর্যাপ্ত পানি পান অত্যন্ত প্রয়োজন। শরীরের আর্দ্রতা বজায় রাখা, শরীরকে সচল রাখা, ত্বক ও চুলকে ঠিক রাখা, কিডনির যত্ন নেয়া, কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণের জন্য পানি অত্যন্ত উপকারী উপাদান।

আরও পড়ুন : ক্যানসার প্রতিরোধে বেগুনের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা

গরম পানি পান করার স্বাস্থ্য উপকারিতা সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক,

১. রক্ত সঞ্চালন ঠিক রাখতে : গরম পানি শরীরের ব্লাড ভ্যাসেলসকে সক্রিয় রাখতে সাহায্য করে। ফলে প্রতিটি নার্ভ সচল থাকে, যা শরীরকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।

২. শরীরের ব্যথা থেকে মুক্তি দিতে : গরম পানি পান করলে রক্ত সঞ্চালন ভালোভাবে হয় বলে এটি শরীরের প্রতিটি স্নায়ুকে সচল রাখতে সাহায্য করে যা শরীরের বিভিন্ন ব্যথা থেকে মুক্তি দেয়। মাথা যন্ত্রণা, গাঁটে গাঁটে ব্যথা, নারীর ঋতুচক্রের খিঁচুনিতে আরামদায়ক গরম পানি।

৩. ডিটক্স : শরীরকে ডিটক্স করতে গরম পানি শরীর থেকে সমস্ত ক্ষতিকারক টক্সিনকে বের করে দেয়। গরম পানি ঘাম ও মূত্রের মধ্য দিয়ে শরীরের টক্সিন দূর করতে সাহায্য করে যা শরীরকে সুস্থ রাখতে সহায়তা করে।

আরও পড়ুন : ৭ উপায়ে নিয়ন্ত্রণে আনুন শিশুদের ইন্টারনেট আসক্তি

৪. অনিয়মিত পিরিয়ড ও ব্যথা থেকে মুক্তি : নারীদের গরম পানি পান করার একটি বড় সুবিধা হলো, এটি অনিয়মিত ঋতুস্রাব ঠিক করতে এবং ঋতুস্রাবের ব্যথা থেকে উপশম দিতে সহায়তা করে। অনেক সময় রক্ত জমাট বেঁধে তা বেরোতে না পারলে ব্যথা হতে থাকে। এ সময় গরম পানি পান করলে জমাট রক্ত ভেঙে ব্লাড ফ্লো সঠিকভাবে হয়, যা ব্যথা থেকে মুক্তি দেয়।

৫. কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে : বহু মানুষের সাধারণ সমস্যা কোষ্ঠকাঠিন্য। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে রাতে ঘুমানোর আগে এবং সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে এক গ্লাস করে গরম পানি পান করুন। এটি অন্ত্রের মধ্য দিয়ে যাওয়ার সময় অন্ত্রকে সংকুচিত করে বর্জ্য পদার্থ দূর করতে সহায়তা করে।

৬. ওজন কমাতে সাহায্য করে : গরম পানি শরীরের অতিরিক্ত মেদ ঝরাতে সাহায্য করে এবং খিদে কমায়। ফলে ক্যালোরি ইনটেক কম হয়, যা দ্রুত ওজন ঝরাতে সহায়ক। তাই প্রতিদিন সকালে খালিপেটে লেবু বা মধু এক গ্লাস গরম পানিতে মিশিয়ে পান করুন।

আরও পড়ুন : পিরিয়ডের সময়ের শারীরিক সম্পর্ক উচিত না অনুচিত

৭. হজমশক্তি বৃদ্ধি : হজমশক্তি বাড়াতে গরম পানির ভূমিকা অপরিসীম। পাকস্থলী ও অন্ত্রের মধ্য দিয়ে যাওয়ার সময় হজম অঙ্গগুলোকে আরও ভালোভাবে হাইড্রেটেড করে, যার ফলে বর্জ্যবস্তু শরীর থেকে নিষ্কাশন হয় এবং হজম ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। তাই রাতে ঘুমানোর আগে এক গ্লাস গরম পানি পান করুন।

এছাড়াও গরম পানি জমে যাওয়া সর্দি, নাক বন্ধ হয়ে যাওয়া ইত্যাদি থেকে মুক্তি পেতে সাহায্য করে। স্ট্রেস কমাতে সাহায্য করে। গরম পানি ত্বককে আর্দ্র রাখতে সাহায্য করে এবং ব্রণের সমস্যা থেকে মুক্তি দেয়। ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখতে এবং বার্ধক্যের ছাপ পড়তে না দিতে গরম পানি সাহায্য করে। গরম পানি স্কাল্পকে হাইড্রেটেড রেখে খুশকি থেকে দূরে রাখে।

আরও পড়ুন : বিয়ের পর সম্পর্ক টিকিয়ে রাখবে এই ৪ বিষয়!

সূত্র: স্বাস্থ্য ও জীবনধারা-বিষয়ক ওয়েবসাইট বোল্ডস্কাইয়ের প্রতিবেদন

জিএম/এসএস

RTV Drama
RTVPLUS