Mir cement
logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ৪ আষাঢ় ১৪২৮

প্রেমিকের সঙ্গে মিলে স্বামীকে ৩ টুকরো, জানা গেল ভ'য়ঙ্কর কাহিনী!

ফাইল ছবি

প্রেমিকের সঙ্গে মিলে একত্রে স্বামীকে কুপিয়ে নির্মমভাবে খুন করলেন স্ত্রী। এরপর মরদেহ ৩ ভাগে ভাগ করে সেই দেহ লুকিয়ে রাখেন রান্নাঘরে। আবার ভয়ঙ্কর এই ঘটনা ঘটেছে তাদেরই মাত্র ছয় বছরের শিশু কন্যার সামনেই। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মুম্বাইতে। তবে অভিযুক্ত স্ত্রী ও তার প্রেমিককে ইতোমধ্যে গ্রেপ্তার করেছ পুলিশ।

সূত্রের খবর বলছে, ২০১২ সালে উত্তরপ্রদেশের গন্ডায় শাহিদা শেখের সঙ্গে রইজ শেখের বিয়ে হয়। কাজের জন্য ৬ বছরের শিশু মেয়ে ও ২ বছরের ছোট ছেলেকে নিয়ে মুম্বাই চলে আসেন তারা।

পুলিশ সূত্র বলছে, ২৫ মে দাহিসার থানায় স্বামী নিখোঁজের ডায়েরি করেন স্ত্রী শাহিদা। স্বামীর সঙ্গে কোনো যোগযোগ করতে পারছেন না বলে জানান। ২১ মে থেকেই নাকি নিখোঁজ স্বামী রইজ। এরপর তদন্ত শুরু করে পুলিশ। ওই দিনই রইজের ভাই আনিজ থানায় আসে। সে পুলিশকে জানায়, শাহিদা কোনো কিছু আড়াল করার চেষ্টা করছে। পুলিশ তাদের বাড়ি গিয়ে তল্লাশি চালালে প্রশ্নবানের মুখে স্বামীকে খুনের কথা স্বীকার করে শাহিদা। তাদের ছয় বছরের শিশু কন্যাও সেই ভয়ঙ্কর খুনের কথা জানান। এমনকি কাউকে এ কথা জানালে তাকেও একইভাবে মেরে ফেলার হুমকি দেয় তারই মা শাহিদা।

এছাড়াও জানা গেছে, প্রতিবেশী যুবক অমিত মিশ্র (অনিকেত)-এর সঙ্গে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক ছিল শাহিদার। কিন্তু এতে রইজের আপত্তি ছিল। তাই তো পথের কাঁটা দূর করার জন্য প্রেমিকের সঙ্গে মিলে স্বামীকে খুনের সিদ্ধান্ত নেয় শাহিদা। সূত্র : জি-নিউজ

এসআর/

RTV Drama
RTVPLUS