logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৭ ফাল্গুন ১৪২৬

কেজরিওয়ালের হ্যাটট্রিক জয়

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৩:১২ | আপডেট : ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১২:৪৭
কেজরিওয়ালের হেট্রিক জয়
আবারও দিল্লি জয় অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টির। বিধানসভা নির্বাচনের ভোট গণনায় প্রাথমিক হিসাবে দেখা যাচ্ছে ৭০টি আসনের মধ্যে ৬২টি আসনই পেয়েছে আম আদমি পার্টি। আর বিজেপি পেয়েছে ৮টি আসন। অন্যদিকে কংগ্রেস কোনও আসনই পায়নি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানায়, আজ মঙ্গলবার সকালে ভোট গণনা শুরু থেকেই এগিয়ে ছিল আম আদমি পার্টি। সবশেষ খবরে জানা যায়, ৭০টি আসনের মাঝে ৬২টি আসনই পেয়েছে আম আদমি পার্টি। আর ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপি পেয়েছে ৮টি আসন। অন্যদিকে কংগ্রেস কোনও আসনই পায়নি।

সংখ্যাগরিষ্ঠতার জন্যে প্রয়োজন ছিল ৩৬টি আসনের। কিন্তু ৬২টি আসন পাওয়ায় আম আদমি পার্টি চিন্তুমুক্ত একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়ে গেছে।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত দিল্লি রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে ভোট পড়েছিলো ৬২.৫৯ শতাংশ। সেদিন বুথ ফেরত ভোটারদের জরিপে আম আদমির আবারও বিজয়ী হওয়ার আভাস পাওয়া গিয়েছিল।

২০১৫ সালের নির্বাচনে কেজরিওয়ালের দল ৭০ আসনের মধ্যে ৬৭টিতে জয়ী হয়। গত পাঁচ বছর তারা দিল্লির স্বল্পআয়ের মানুষদের বিনামূল্যে বিদ্যুৎ ও খাবার পানির ব্যবস্থা করেছে। পাশাপাশি সরকারি স্কুলের উন্নতি সাধন ও মহল্লা ক্লিনিক স্থাপন করে। নারীদের জন্যে বিনামূল্যে বাস সেবাও দলটির অন্যতম প্রশংসিত উদ্যোগ।

নির্বাচনের আগে তিনি দিল্লির প্রতিটি শিশুর জন্য বিশ্বমানের শিক্ষার ব্যবস্থা নিশ্চিত করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। এছাড়াও, দিল্লি মেট্রোকে বিশ্বের দীর্ঘতম করে তোলার কথা বলেছিলেন নির্বাচনী ইশতেহারে।

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে সাতটি আসনের সবকটিতেই জয়ী হওয়ায় এবার বিধানসভাতেও সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ার ব্যাপারে আশাবাদী ছিলো বিজেপি।

গেরুয়া শিবিরের নির্বাচনী প্রচারে ২৭০ জন সংসদ সদস্য, ৭০ জন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী এবং রাজ্যস্তরের নেতারা অংশ নিয়েছিলেন। প্রচারের শেষ পর্যায়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ঘরে ঘরে গিয়ে ভোট চেয়েছেন।

বিজেপির দিল্লি শাখার সভাপতি মনোজ তিওয়ারি দাবি করেছিলেন, তার দল ৪৮টি আসনে জয়ী হতে চলেছে। বুথ ফেরত জরিপকে ভুল বলে মন্তব্য করেছিলেন।

এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ
  • আন্তর্জাতিক এর পাঠক প্রিয়