logo
  • ঢাকা রোববার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১০ ফাল্গুন ১৪২৬

মসজিদের জন্য অনুদানের জমির প্রয়োজন নেই: ভারতীয় মুসলিম নেতা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ০৯ নভেম্বর ২০১৯, ২১:২৭ | আপডেট : ০৯ নভেম্বর ২০১৯, ২৩:১৭
ভারত, বাবরি মসজিদ
সংগৃহীত
ভারতের সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বে পাঁচ বিচারপতির সাংবিধানিক বেঞ্চ শনিবার অযোধ্যা বিবাদ মামলার রায় ঘোষণা করেছেন। এই রায় অনুসারে, বাবরি মসজিদ যেখানে ছিল, সেখানে শর্তসাপেক্ষে জমি পাবে হিন্দুরা।

তবে মসজিদ নির্মাণের জন্য মুসলিমদের বিকল্প জমি দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। অযোধ্যার অন্য কোনও জায়গার পাঁচ একর জমি দেয়া হবে সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডকে। কিন্তু এই রায়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছে অল ইন্ডিয়া মজলিস-ই-ইত্তেহাদুল মুসলিমিন (এআইএমআইএম)।

রাজনৈতিক দলটির প্রেসিডেন্ট আসাদুদ্দিন ওয়াইসি এই রায়ের পরিপ্রেক্ষিতে বলেন, সুপ্রিম কোর্ট নিঃসন্দেহে সবার ওপরে তবে অকাট্য নয়। এটি আস্থার জয়, সত্যের নয়। এই রায়ে আমি সন্তুষ্ট নই। মসজিদের জন্য অনুদানের পাঁচ একর জমির প্রয়োজন নেই আমাদের। খবর ভারতীয় গণমাধ্যম ওয়ান ইন্ডিয়ার।

---------------------------------------------------------------
আরো পড়ুন: অযোধ্যার বিতর্কিত স্থান মন্দিরের, মসজিদের জন্য পৃথক জায়গা
---------------------------------------------------------------

তিনি বলেন, সুপ্রিম কোর্ট সর্বোচ্চ কিন্তু তার রায় অকাট্য নয়। সংবিধানের ওপর আমাদের পূর্ণ আস্থা আছে। আমরা অধিকারের জন্য লড়াই করে যাচ্ছিলাম। আমাদের পাঁচ একর জমি প্রত্যাখ্যান করা উচিত। উপহারের প্রয়োজন নেই আমাদের।

এই রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করায় কংগ্রেসের সমালোচনা করে এআইএমআইএম প্রেসিডেন্ট বলেন, আজ কংগ্রেস তাদের আসল রং দেখিয়ে দিল। কংগ্রেস শুধু প্রতারণা ও ভণ্ডামি করে। ১৯৪৯ সালে কার আমলে এখানে মূর্তি বসানো হয়েছিল?

তিনি বলেন, রাজীব গান্ধী (ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী) যদি মন্দিরের দরজা না খুলতেন, তবে এখনও এখানে মসজিদ থাকত। নরসীমা রাও (ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী) যদি নিজের কর্তব্য পালন করতেন, তবে এখনও এখানে মসজিদ থাকত।

কে/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ
  • আন্তর্জাতিক এর পাঠক প্রিয়