logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ৩ কার্তিক ১৪২৬

আড়াই লাখ লিটার ডিজেল পাচারের অভিযোগে আমিরাতগামী জাহাজ আটক ইরানের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৮:৩৭
ইরান, সংযুক্ত আরব আমিরাত
ফাইল ফটো (ফ্রান্সের গণমাধ্যম ইউরোনিউজ থেকে নেয়া)
ইরানের রেভল্যুশনারি গার্ডস পারস্য উপসাগর থেকে দুই লাখ ৫০ হাজার লিটার ডিজেল পাচারের অভিযোগে সংযুক্ত আরব আমিরাতগামী একটি জাহাজ আটক করেছে।

সোমবার ইরানি সংবাদ সংস্থা আইএসএনএ এক প্রতিবেদনে এই জানায় বলে জানিয়েছে যুক্তরাজ্যের সংবাদ সংস্থা রয়টার্স।

আইএসএনএ জানায়, পারস্য উপসাগরে ইরানের গ্রেটার তুন্ব দ্বীপের কাছাকাছি জায়গা থেকে জাহাজটিকে আটক করা হয়।

আরও জানায়, জাহাজটির ক্রু সদস্যদেরকে দক্ষিণাঞ্চলীয় হুরমুজগান প্রদেশের কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে তারা কোন দেশের নাগরিক তা উল্লেখ করেনি সংবাদ সংস্থাটি।

সৌদি আরবের রাষ্ট্র মালিকানাধীন তেল কোম্পানি সৌদি আরামকোর দুটি প্রধান স্থাপনায় হামলার পরপরই জাহাজ আটকের বিষয়টি সামনে এলো।

ইয়েমেনে ইরান সমর্থিত হুতি বিদ্রোহীরা সৌদি আরবে  হামলার দায় স্বীকার করেছে। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্র এই হামলার জন্য ইরানকে দায়ী করেছে। তবে এই দায় অস্বীকার করেছে ইরান।

চলতি মাসের শুরুতে ইরানের কোস্ট গার্ড জ্বালানি পাচারের অভিযোগ উপসাগর থেকে একটি জাহাজ এবং এতে থাকা ১২ ফিলিপিনো ক্রু সদস্যকে আটক করে।

এর আগে ব্রিটিশ সৈন্যরা ইরানের অ্যাড্রিয়ান দারিয়া ওয়ান নামের ট্যাংকারটি আটক করে। এটির নাম আগে ছিল গ্রেস ওয়ান।

ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন করে সিরিয়ার উদ্দেশে তেল নিয়ে যাওয়ার অভিযোগে জিব্রাল্টারের কাছাকাছি অঞ্চল থেকে এটি আটক করা হয়।

এর দুই সপ্তাহ পর ইরান সামুদ্রিক আইন লঙ্ঘনের দায়ে হরমুজ প্রণালীর কাছাকাছি থেকে ব্রিটিশ পতাকাবাহী স্টেনো ইম্পেরো তেলের ট্যাংকার আটক করে ইরান।

চলতি মাসেই ইরানের ট্যাংকারটি ছেড়ে দেয়া হয়। ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আব্বাস মৌসাভি সোমবার জানান দ্রুতই ব্রিটিশ ট্যাংকারটি ছেড়ে দেয়া হবে।

গত মে মাসে যুক্তরাষ্ট্র ইরানের তেল রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে।

কে/এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়