logo
  • ঢাকা বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬

গুজরাটে বৃহস্পতিবার আছড়ে পড়বে ঘূর্ণিঝড় বায়ু, রেড অ্যালার্ট

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ১২ জুন ২০১৯, ১২:৪৫ | আপডেট : ১২ জুন ২০১৯, ১৩:০০
ছবি: সংগৃহীত
ঘূর্ণিঝড় ফণীর পর এবার ভারতের দিকে ধেয়ে আসছে ভয়াবহ আরেক ঘূর্ণিঝড় বায়ু। ভারতের আবহাওয়া দপ্তরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, আগামীকাল বৃহস্পতিবার সকালে গুজরাটের উপকূলে আছড়ে পড়বে তীব্র মাত্রার এই ঘূর্ণিঝড়টি। এসময় ঝড়ের সর্বোচ্চ গতিবেগ হতে পারে ঘণ্টায় ১৩৫ কিলোমিটার।

ভারতের আবহাওয়া দপ্তর এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ১৩ জুন (বৃহস্পতিবার) সকালে ঘণ্টায় ১১০-১২০ কিমি বেগে ঝড়ো হাওয়া উত্তর আরব সাগরের ওপর এবং গুজরাট উপকূল দিয়ে বয়ে যেতে পারে। বাতাসের গতিবেগ বেড়ে ঘণ্টায় ১৩৫ কিলোমিটারও হতে পারে। এরপর ধীরে ধীরে গতিবেগ কমবে। উত্তর মহারাষ্ট্র উপকূল ও পূর্ব-মধ্য আরব সাগরের উত্তরভাগের উপর দিয়ে ঘণ্টায় ৫০-৬০ কিলোমিটার থেকে ঘণ্টায় ৭০ কিলোমিটার পর্যন্ত গতিবেগে ঝড়ো বাতাস বইতে পারে।

এদিকে গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপানি সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী, কোস্টগার্ড ও ন্যাশনাল ডিজাস্টার রেসপন্স ফোর্স (এনডিআরএফ)-র কাছে সাহায্য চেয়েছেন। ইতোমধ্যে ২৬ কোম্পানি এনডিআরএফকে উপকূল অঞ্চলে মোতায়েন করা হয়েছে। নিচু এলাকা থেকে তিন লাখ মানুষকে সরিয়ে নিতে কাজ করে যাচ্ছে গুজরাটের প্রশাসন।

এছাড়া ঘূর্ণিঝড় বায়ুর আঘাতকে সামনে রেখে বৃহস্পতিবার গুজরাটে ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। আর পর্যটকদের বুধবার দুপুরের পর থেকে নিরাপদ স্থানে চলে যাওয়ার অনুরোধ জানানো হয়েছে।

অন্যদিকে ঘূর্ণিঝড় বায়ুর কারণে মহারাষ্ট্র, গোয়া ও গুজরাটের উপকূলীয় এলাকায় প্রবল বৃষ্টিপাতের ব্যাপারে সতর্কতা জারি করা হয়েছে। তাছাড়া গুজরাটের সৌরাষ্ট্র ও কচ্ছে রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে।

এর আগে আরব সাগরের নিম্নচাপটি মঙ্গলবারই ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে। বৃহস্পতিবার স্থলভাগে আছড়ে পড়ার আগে আরও এক দফা শক্তি বাড়তে পারে ঘূর্ণিঝড়টি। প্রশাসন বলছে, ঘূর্ণিঝড় ফণীর মতোই তাণ্ডব চালাতে পারে ঘূর্ণিঝড় বায়ু।

গুজরাটের কচ্ছ, দেবভূমি দ্বারকা, পোরবন্দর, রাজকোট, দিউ, গির সোমনাথ, আমরেলি ও ভাবনগরে ঝড়ের কোপ পড়তে পারে। যদিও সব রকমের প্রস্তুতি নিয়ে রাখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

এ/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়