logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯, ৩ শ্রাবণ ১৪২৬

মুক্ত গণমাধ্যম সূচকে দক্ষিণ এশিয়ার তলানিতে বাংলাদেশ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ১৩:১৬ | আপডেট : ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ১৬:০১
আরএসএফ ওয়েবসাইট থেকে নেয়া
মুক্ত গণমাধ্যম সূচকে দক্ষিণ এশিয়ার তলানিতে অবস্থান করছে বাংলাদেশ। এছাড়া বৈশ্বিক তালিকায় ৪ ধাপ পিছিয়ে বাংলাদেশের অবস্থান এখন ১৫০।

সম্প্রতি মুক্ত গণমাধ্যম সূচক প্রকাশ করেছে বৈশ্বিক গণমাধ্যম নিয়ে কাজ করা সংস্থা রিপোর্টার্স উইদআউট বর্ডার্স। মোট ১৮০টি দেশ নিয়ে সর্বশেষ ‘ওয়ার্ল্ড প্রেস ফ্রিডম ইনডেক্স-২০১৯’  প্রকাশ করেছে তারা।

এতে শীর্ষস্থানে আছে স্ক্যান্ডেনেভিয়ান দেশ নরওয়ে। তালিকায় শীর্ষ পাঁচে থাকা বাকি দেশগুলো হলো ফিনল্যান্ড, সুইডেন, নেদারল্যান্ড ও ডেনমার্ক। অর্থাৎ এই দেশগুলোর সাংবাদিকরা সবচেয়ে স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারেন।

মুক্ত গণমাধ্যম সূচকে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে শীর্ষস্থানে আছে ভুটান। যদিও বৈশ্বিক সূচকে তাদের অবস্থান ৮০তম। এই অঞ্চলে ভুটানের পরে থাকা দেশগুলো হলো যথাক্রমে মালদ্বীপ (৯৮), নেপাল (১০৬), আফগানিস্তান (১২১), শ্রীলঙ্কা (১২৬), ভারত (১৪০), পাকিস্তান (১৪২) এবং বাংলাদেশ (১৫০)।

এই সূচকে বাংলাদেশ সম্পর্কিত বিবরণীতে বলা হয়, ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেয়া কঠোর কিছু পদক্ষেপের শিকার হয়েছে বাংলাদেশি সাংবাদিকরা। এখানে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে নেতাকর্মীদের সহিংসতার ঘটনা, বিভিন্ন নিউজ ওয়েবসাইট ব্লক করে দেয়া এবং সাংবাদিকদের গ্রেপ্তার করার বিষয়গুলো তুলে ধরা হয়েছে। পাশাপাশি ফটোসাংবাদিক শহিদুল হকের ঘটনাও তুলে ধরা হয়েছে এখানে।

 

প্রকাশিত এই সূচকে মোট পাঁচটি ক্যাটাগরি রয়েছে। এগুলো হলো- ভালো অবস্থা, সন্তোষজনক অবস্থা, সমস্যাগ্রস্ত অবস্থা, খারাপ অবস্থা এবং খুবই খারাপ অবস্থা। এই ক্যাটাগরিগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ ‘খারাপ অবস্থা’ ক্যাটাগরিতে রয়েছে।

বৈশ্বিক তালিকায় একেবারে নিচের দিকে থাকা পাঁচটি দেশ হলো- তুর্কেমিনিস্তান (১৮০), উত্তর কোরিয়া (১৭৯), ইরিত্রিয়া (১৭৮), চীন (১৭৭) এবং ভিয়েতনাম (১৭৬)। উল্লেখিত সবগুলো দেশের অবস্থানই ‘খুবই খারাপ অবস্থা’ ক্যাটাগরিতে।

ডি/এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়