• ঢাকা বুধবার, ২২ মে ২০১৯, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

ভারত ত্যাগ করছে ধনীরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ১৬ এপ্রিল ২০১৯, ২৩:৩০ | আপডেট : ১৬ এপ্রিল ২০১৯, ২৩:৩২
ছবি: আনন্দবাজার

গত বছর কমপক্ষে পাঁচ হাজার ভারতীয় ধনকুবের দেশ ছেড়েছে। সারাবিশ্বে দেশত্যাগী ধনকুবেরদের তালিকায় চীন ও রাশিয়ার পরেই ভারতের অবস্থান।

মঙ্গলবার একটি প্রতিবেদনে অ্যাফ্রো এশিয়া ব্যাংক এবং নিউ ওয়ার্ল্ড ওয়েলথের যৌথ উদ্যোগে প্রকাশিত গ্লোবাল ওয়েলথ মাইগ্রেশন রিভিউ রিপোর্ট ২০১৯ এর বরাত দিয়ে এসব তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার।

এই রিপোর্টে যাদের ব্যক্তিগত সম্পত্তির পরিমাণ এক মিলিয়ন ডলার বা সাত কোটি রুপি, তাদেরকে ধনকুবের বলে উল্লেখ করা হয়েছে। এই হিসেবে সারাবিশ্বে ধনকুবেরের সংখ্যা প্রায় দেড় কোটি। এদের মধ্যে তিন লাখ ২৭ হাজার ভারতীয়।

ভারতে ধনকুবেরদের সংখ্যার মতোই বাড়ছে দেশত্যাগী ধনকুবেরের সংখ্যা। ভারতীয় ধনকুবেরদের দেশত্যাগের প্রধান কারণ হলো নিরাপত্তা। নিরাপত্তাহীনতার জন্যই তারা দেশে থাকা ঠিক মনে করছেন না বলে উল্লেখ করা হয়েছে রিপোর্টটিতে।

তবে ভারতের জন্য আশার বাণীও আছে এই রিপোর্টে। এতে বলা হয়েছে, যত ভারতীয় ধনকুবের দেশ ছাড়ছে, তার থেকে বেশি সংখ্যায় ধনকুবের তৈরি হচ্ছে ভারতে। তাই স্থায়িত্ব ও নিরাপত্তা ফিরলে নিজেদের সম্পদের পরিমাণ বাড়াতে পারবে দেশে থাকা ধনকুবেররা।

গ্লোবাল ওয়েলথ মাইগ্রেশন রিভিউ রিপোর্ট ২০১৯ অনুসারে, ভারতের মোট উৎপাদন যেমন বাড়ছে, তেমনি বাড়ছে দেশটিতে ধনী-গরিবের বৈষম্য। অর্থাৎ ধনকুবেরদের সংখ্যা বাড়লেও অর্থনীতির নিচের সারিতে থাকা মানুষেরা আরও গরিব হচ্ছে।

এতে বলা হয়েছে, ভারতের ৪৮ শতাংশ সম্পত্তিই সাড়ে তিন লাখ মানুষের হাতে। বাকি ৫২ শতাংশ সম্পত্তি আছে প্রায় ১৩০ কোটি মানুষের হাতে। ভারতকে অর্থনৈতিক ও সামাজিকভাবে নিরাপদ করার মাধ্যমেই ধনকুবেরদের দেশত্যাগের সংখ্যা কমানো যেতে পারে।

কে/ডি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়