logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬

জাপানে আবারও সুনামি আতঙ্ক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১০:০৩ | আপডেট : ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১০:০৭
ওরফিশ

পুরো জাপান আবারও সুনামির আতঙ্কে ভুগছে। কয়েক বছর আগে যে ভয়ঙ্কর সুনামি কেড়ে নিয়েছিল জাপানিদের চোখের ঘুম, ফের সেই আতঙ্কই ফিরে এসেছে তাদের চোখেমুখে। আর এর কারণ একটি বিরল প্রজাতির মাছ। সম্প্রতি সেই মাছটি আবারও দেখা গেছে জাপানে। জাপানিদের বিশ্বাস ওই মাছ বয়ে আনে ভূমিকম্প ও সুনামির বার্তা।

বিরল প্রজাতির এই মাছের নাম ওরফিশ। শুক্রবার এই মাছটি ধরা পড়ে জাপানের তোয়ামা এলাকায়। এ নিয়ে এই মৌসুমে প্রায় সাতটি ওরফিশ ধরা পড়লো। শুক্রবার তোয়ামা সাগর থেকে যে ওরফিশটি ধরা পড়ে সেটি ৩.২ মিটারের।

এরপরই ইমিজুতে এক মৎস্যজীবীর জালে ধরা পড়ে ৪ মিটারের একই মাছ। এতেই আতঙ্ক বাড়ছে জাপানে। কারণ এই মাছ সমুদ্রের ২০০ থেকে এক হাজার মিটার গভীরে থাকে। এর পুরো শরীর রুপালি রঙের। পাখনা লাল রঙের।

জাপানি ভাষায় এই মাছের নাম ‘রিউগু নো সুকাই’। এর মানে ‘সমুদ্রের ভগবানের অট্টালিকার দূত’। সমুদ্রের তলদেশ থেকে এই মাছ বয়ে আনে ধ্বংসের বার্তা। এমনই কথিত আছে জাপানে। আর এর ওপর ভিত্তি করেই আতঙ্ক ছড়াচ্ছে জাপানজুড়ে।

তবে বিজ্ঞানীদের মতে, এর কোনও সত্যতা নেই। এর বৈজ্ঞানিক কোনও ভিত্তি খুঁজে পাওয়া যায়নি। অন্তত এখনও তেমন কিছু আবিষ্কারও হয়নি। কিন্তু সম্ভাবনা যে একেবারেই নেই, তাও জোর দিয়ে বলা সম্ভব নয়।

কারণ বিজ্ঞানীরা শতভাগ নিশ্চিত হয়ে বলতে পারছেন না যে, ভূমিকম্প হবে না বা সুনামি আসবে না। তাদের মতে, বিশ্বায়নের ফলে অনেক কিছুরই সম্ভাবনা বেড়ে গেছে। এরমধ্যে সুনামি অন্যতম। কিন্তু ওরফিশ এর পূর্বাভাস বয়ে আনছে কিনা, তার কোনও প্রমাণ তাদের হাতে নেই।

ওরফিশের গল্পকথা শুরু হয় ২০১১ সালে। সেবার বিধ্বংসী ভূমিকম্প ও সুনামির ফলে ২০ হাজার মানুষ মারা গিয়েছিল জাপানে। তার আগে অন্তত এক ডজন ওরফিশ জাপানের বিভিন্ন উপকূলে দেখা গিয়েছিল। তাই জাপানিদের বিশ্বাস, এবারও প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের সম্ভাবনা রয়েছে। সেই সংকেতই দিচ্ছে ওরফিশ।

এ/পি

bestelectronics bestelectronics
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়