DMCA.com Protection Status
  • ঢাকা সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০১৯, ৯ বৈশাখ ১৪২৬

সাইকেলে করে মায়ের দেহ সৎকারে নিয়ে গেল ছেলে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
|  ১৮ জানুয়ারি ২০১৯, ১২:০৮ | আপডেট : ১৮ জানুয়ারি ২০১৯, ১২:১৮

নিচু জাত বলে প্রতিবেশীরা কেউই সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসেনি। তাই বাধ্য হয়ে মায়ের সৎকার করতে  কিশোর ছেলে সাইকেলে করে মায়ের মরদেহ বাড়ি থেকে চার-পাঁচ কিলোমিটার দুরের জঙ্গলে নিয়ে একাই সৎকার করলো। এমনই এক মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উড়িষ্যা রাজ্যের ‍সুন্দরগড় এলাকায়।

জানা গেছে, মা জানকী সিংহানিয়ার সঙ্গে থাকতেন একমাত্র ছেলে ১৫ বছর বয়সী সরোজ। মাত্র সাত বছর বয়সে বাবাকে হারান সরোজ। এরপর মা জানকীই পুরো সংসারের দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নেন। ছেলেকে একা হাতেই মানুষ করছিলেন তিনি।

কিন্তু বৃহস্পতিবার সকালে কুয়ায় পানি তুলতে গিয়ে হঠাৎ অজ্ঞান হয়ে যান জানকী। ঘটনাস্থলেই হৃদযন্ত্রে ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মৃত্যু হয় তার। মায়ের মৃত্যুতে প্রথমে দিশেহারা হয়ে যায় সরোজ। কিন্তু মৃতদেহ তো আর ফেলে রাখা যাবে না। ধর্মীয় অনুশাসন মেনে সৎকার করতে হবে। তাই প্রতিবেশীদের কাছে সাহায্যের জন্য হাত পেতেছিল সরোজ। কিন্ত ‘ছোট জাত’ বলে কেউ তাকে সাহায্য করেনি। একজন প্রতিবেশীও সরোজের দুঃসময়ে এগিয়ে আসেনি।

তখন সাইকেলের পেছনে দুই পাশে লম্বালম্বি দুটো বাঁশ বেঁধে মাচা তৈরি করে নেয় সে। মাকে সেখানে শুইয়ে দেয়। এরপর চোখের জল মুছে সাইকেলে ঠেলতে শুরু করে। রোদের মধ্যে এভাবে সাইকেল ঠেলে প্রায় চার-পাঁচ কিলোমিটার দূরের জঙ্গলে আসে সে। এরপর সেখানকার শশ্মানে মাকে সৎকার করে সরোজ।

ওই ঘটনা ভারতের বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত হওয়ার পর আলোড়ন তৈরি হয়েছে। সাইকেলে করে মায়ের মরদেহ বয়ে নেয়ার ছবিটি ইতোমধ্যেই সামাজিক মাধ্যমেও ভাইরাল হয়েছে।

এ/ এমকে 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়