Mir cement
logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৯ আশ্বিন ১৪২৮

ইরানকে আরও শক্তিশালী করতে চান রায়িসি

ইরানকে আরও শক্তিশালী করতে চান রায়িসি
সংগৃহীত

ইরানের অষ্টম প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েছেন কট্টরপন্থী হিসেবে পরিচিত ইব্রাহিম রায়িসি। বৃহস্পতিবার রাজধানী তেহরানে দেশটির পার্লামেন্টে ওই শপথ অনুষ্ঠান হয়। কুরআন হাতে নিয়ে শপথ গ্রহণ করেন রায়িসি। এসময় তিনি ইরানকে আরও শক্তিশালী এবং বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলার অঙ্গীকার করেন। খবর আল জাজিরার।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টায় এই শপথ অনুষ্ঠিত হয়। তার আগেই ইরানের বিচার বিভাগের প্রধান, সংসদ স্পিকার, সামরিক ও বেসামরিক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের পাশাপাশি বিদেশি অতিথিরা সংসদ ভবনে আসন গ্রহণ করেন। রীতি অনুযায়ী বিদায়ী প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানিও রায়িসির শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

৬০ বছর বয়সী রায়িসি বলেন, ইরানিরা চায় তিনি যেন দেশের স্বাধীনতা রক্ষা এবং বিদেশিদের খবরদারি প্রতিহত করেন। রায়িসিকে দেশটির বর্তমান সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা ৮২ বছর বয়সী আয়াতুল্লাহ আলি খামেনেয়ী উত্তরসূরি মনে করা হয়। অর্থাৎ খামেনেয়ীর মৃত্যুর পর রায়িসিই হবেন দেশটির পরবর্তী সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা।

বিশ্বের সঙ্গে কূটনীতি এবং গঠনমূলক এবং ব্যাপক সম্পর্ক স্থাপনের প্রতিশ্রুতি দিয়ে আঞ্চলিক প্রতিবেশীদের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নের লক্ষ্য নিয়ে তার বিদেশ নীতি সাজাতে চান বলে জোরারোপ করেছেন রায়িসি। তিনি বলেন, আমি সব দেশের প্রতি বন্ধুত্ব এবং ভ্রাতৃত্বের হাত বাড়াচ্ছি, বিশেষ করে আঞ্চলিক দেশগুলোর প্রতি।

এদিকে পশ্চিমা দেশ, ইসরায়েল এবং কিছু আরব প্রতিবেশী দেশের সমালোচনা করে রায়িসি বলেন, এই অঞ্চলে ইরানের উপস্থিতি নিরাপত্তা এবং শান্তি এবং স্থিতিশীলতা তৈরি করেছে। এসময় তিনি পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে ভিয়েনায় চলমান আলোচনা চালিয়ে নিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে ইঙ্গিত দিয়েছেন।

বাংলাদেশ ও ভারতসহ বিশ্বের ৭৩টি দেশের অন্তত ১১৫ জন রাষ্ট্রীয় অতিথি প্রেসিডেন্ট রায়িসির শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগ দেন। এসব অতিথির মধ্যে রাষ্ট্র ও সরকারদের পাশাপাশি ছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী, উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী, পররাষ্ট্র সচিবসহ নানা পর্যায়ের পদস্থ কর্মকর্তা। বাংলাদেশ থেকে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম তিন সদস্যের প্রতিনিধিদল নিয়ে এই শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

মন্তব্য করুন

RTV Drama
RTVPLUS