logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ২০ ফাল্গুন ১৪২৭

পরবর্তী যুদ্ধে কঠোর জবাব দেবো, ইরানকে ইসরায়েল

Our response to be extreme in next war Israel to Iran
সংগৃহীত

ইরান, লেবানন ও গাজা উপতক্যায় নিজেদের শত্রু থেকে যেকোনো হুমকি মোকাবিলায় ‘পরবর্তী যুদ্ধে’ চরম পাল্টা জবাব দেয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছে ইসরায়েল। মঙ্গলবার বিরল এক বক্তব্যে এমন হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন ইসরায়েলি প্রতিরক্ষা বাহিনীর (আইডিএফ) চিফ অব স্টাফ লে. জেনারেল আভিভ কোচাভি।

ইসরায়েলি আইএনএসএস থিংক ট্যাংকের বার্ষিক সম্মেলনে কোচাভি বলেন, যেসব এলাকায় রকেট এবং মিসাইল মজুদ করে রাখা আছে, সেসব অঞ্চল ত্যাগ করতে পরবর্তী যুদ্ধে আমরা লেবাননে এবং গাজার মানুষজনকে সতর্ক করবো।

তিনি আরও বলেন, এ ধরনের হুমকির মুখে আমরা চরম গুরুত্বপূর্ণ পাল্টা হামলা চালাবো। এর অংশ হিসেবে রকেট, ক্ষেপণাস্ত্র এবং যেকোনো অস্ত্র সেটা খোলা জায়গায় হোক বা ভবনের আশেপাশে এবং অভ্যন্তরেই হোক সেগুলোকে লক্ষ্যবস্তু বানানো হবে।

লে. জেনারেল কোচাভি বলেন, ইহুদি রাষ্ট্রের দীর্ঘ দিনের শত্রু ইরান এবং লেবাননের তাদের মিত্র হিজবুল্লাহ এবং ফিলিস্তিনের গাজায় হামাস তাদের সক্ষমতা বাড়িয়ে চলছে। দীর্ঘ দিন ধরেই তেহরান থেকে আর্থিক সহায়তা পেয়ে যাচ্ছে হিজবুল্লাহ ও হামাস।

ইসরায়েলি প্রতিরক্ষা কর্মকর্তারা বলছেন, ইরান প্রতি বছর প্রায় ১০০ কোটি ডলার হিজবুল্লাহর পেছনে ব্যয় করে। আর হামাসের পেছনে বছরে ১০ কোটি ডলার ব্যয় করে। গত এক দশকে হিজবুল্লাহ এবং হামাস ইসরায়েলে হামলার জন্য বাহিনী গঠন করেছে। তাই তাদের থামাতে আমরা সবকিছু করছি।

RTV Drama
RTVPLUS