logo
  • ঢাকা শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

করোনার প্রভাব

বিশ্বব্যাপী আরও ৬৫ হাজার কোটি টাকার বেশি ক্ষতি হতে পারে বিমান সংস্থাগুলোর

IATA expects airline industry to burn $77 billion
সংগৃহীত
করোনাভাইরাসের কারণে যেসব খাতে সবচেয়ে বড় ধাক্কা পড়েছে বিমান খাত সেগুলোর একটি। এমন পরিস্থিতিতে চলতি বছরের দ্বিতীয়াংশে আরও ৭৭ বিলিয়ন ডলার ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারে বিশ্বের বিমান খাত।

আন্তর্জাতিক এয়ার ট্রান্সপোর্ট অ্যাসোসিয়েশন (আইএটিএ) এমন হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছে। আইএটিএ বলছে, তারা হিসাব করে দেখেছে যে প্রতি মাসে ১৩ বিলিয়ন ডলার বা প্রতি মিনিটে ৩ লাখ ডলার ক্ষতির মুখে পড়বে বিমান সংস্থাগুলো।

করোনার প্রভাব কোনও কোনও দেশে কিছু কমে আসার প্রেক্ষিতে বিভিন্ন দেশে অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালু করেছে। তারপরও সহসাই মার্কেট স্থিতিশীল হবে না বলে মনে করবে আইএটিএ।

ক্ষতির এই ধারা আগামী বছরও অব্যাহত থাকবে বলে সতর্ক করে দিয়েছে আইএটিএ। তারা বলছে, ২০২১ সালে প্রতি মাসে গড়ে ৫-৬ বিলিয়ন ডলার ক্ষতির মুখে পড়বে বিমান সংস্থাগুলো।

এয়ারলাইন্সের বৈশ্বিক সংস্থাটি জানিয়েছে, চলতি বছরের দ্বিতীয় কোয়ার্টারে ৫১ বিলিয়ন ডলার কনজিউম করেছে এয়ারলাইনগুলো। করোনার কারণে বিমান খাত অনেকটাই স্থবির হয়ে পড়েছে।

আরও পড়ুন :
এ বছরই আসবে করোনার টিকা: ডব্লিউএইচও

সংস্থাটির প্রধান অর্থনীতিবিদ ব্রায়ান পিয়ার্স বলেছেন, এখন বেতনের ওপর থেকে ভর্তুকি প্রত্যাহারের মতো ঘটনা ঘটবে। এমন পরিস্থিতিতে কর্মীদের সহায়তায় বিভিন্ন দেশের সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে আইএটিএ।

এমন এক সময় সংস্থাটি এই আহ্বান জানালো যখন মার্কিন বিমান সংস্থাগুলো ৩২ হাজারের বেশি কর্মীকে সাময়িক ছুটি দিচ্ছে। ইউরোপ এবং অন্যান্য জায়গায়ও চাকরি বা বেতন নিয়ে ঝুঁকির মুখে পড়েছে বিমান সংস্থাগুলোর কর্মীরা।

RTVPLUS