logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭

জাতিসংঘ ও গুগলে নতুন মানচিত্র পাঠাচ্ছে নেপাল

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

|  ০৩ আগস্ট ২০২০, ১১:৫৮ | আপডেট : ০৩ আগস্ট ২০২০, ১২:৫৭
nepal send updated map india, un, international community
নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা ওলি
সম্প্রতি কালাপানি, লিপুলেখ এবং লিম্পিয়াধুরাকে অন্তর্ভুক্ত করে নতুন মানচিত্র তৈরি করেছে নেপাল। সে দেশের সংসদে পাসও হয়েছে নতুন এই মানচিত্র। এবার দেশের সংশোধিত মানচিত্র ভারত ও আন্তর্জাতিক গোষ্ঠীর কাছে পাঠাবে কেপি শর্মা ওলির সরকার। নেপাল সরকারের এক মন্ত্রী এ কথা জানিয়েছেন। আগস্টের মাঝামাঝি সংশোধিত মানচিত্র পাঠানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানা গেছে।

সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, নেপালের ভূমি ব্যবস্থা, সমবায় ও দারিদ্র মোচন দপ্তরের ভারপ্রাপ্ত মন্ত্রী পদ্ম আরিয়াল বলেছেন, ভারতসহ জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থা ও গুগলসহ আন্তর্জাতিক সব গোষ্ঠীর কাছে কালাপানি, লিপুলেখ এবং লিম্পিয়াধুরাকে অন্তর্ভুক্ত করে নেপালের নতুন মানচিত্র পাঠানো হবে। চলতি মাসের মাঝামাঝি এই প্রক্রিয়া শেষ হবে। নতুন মানচিত্রের আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির জন্যই কাঠমান্ডুর এই মরিয়া প্রয়াস বলে মনে করা হচ্ছে।

পরিমাপ বিভাগকে ইতোমধ্যেই চার হাজার সংশোধিত মানচিত্রের প্রতিলিপি তৈরি করতে বলা হয়েছে। সেগুলোই ভারত, জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থা ও আন্তর্জাতিক সব গোষ্ঠীর কাছে পাঠানো হবে। দেশের ভেতর নতুন মানচিত্রের ২৫ হাজার কপি বিলি করা হয়েছে। ভারতে সরকারি লেটারহেডে যেমন অশোকস্তম্ভের সিংহ প্রতীক হিসেবে ব্যবহার করা হয়ে থাকে, নেপালেও তেমন নতুন মানচিত্র সরকারি কাজে এমব্লেম হিসেবে ব্যবহার হচ্ছে।

চলতি বছর মে মাসে ভারতের সঙ্গে সীমান্ত বিরোধে জড়িয়ে পড়ে নেপাল। কেপি শর্মা ওলির সরকারের দাবি কালাপানি, লিপুলেখ এবং লিম্পিয়াধুরা তাদের দেশের অংশ। এরপরই নেপাল নতুন মানচিত্র প্রকাশ করে। ভারতের তিনটি অঞ্চলকে নেপালের মানচিত্রের অন্তর্ভুক্ত করা হয়। জুনে ভারতের তিন অঞ্চলকে অন্তর্ভুক্ত করে বিতর্কিত মানচিত্র সংশোধন করার প্রস্তাব নেপালের সংসদে পাস হয়।

নেপালের এই পদক্ষেপের বিরুদ্ধে সরব হয় দিল্লি। নেপালের দাবি ‘ঐতিহাসিক সত্যতা ও যুক্তি’র ওপর নির্ভর নয় বলে জানায় ভারত। কাঠমান্ডুর দাবি ঘিরে দুই দেশের সম্পর্কে অবনতি ঘটে।

সরকারের দাবিকে কেন্দ্র করে নেপালের শাসক দলের বিবাদও প্রকট হয়েছে। নেপাল কমিউনিস্ট পার্টির এক্সিকিউটিভ চেয়ারপার্সন পুষ্প কুমার দাহাল ওরফে প্রচণ্ড প্রধানমন্ত্রী ওলির পদত্যাগ দাবি করেন। প্রচণ্ড জানান, ওলির ভারত বিরোধী মন্তব্য রাজনৈতিকভাবে সঠিক নয়, এমনকি কূটনীতিকভাবে যথোপযুক্ত নয়।

RTVPLUS
bangal
corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ৩৬০৫৫৫ ২৭২০৭৩ ৫১৯৩
বিশ্ব ৩,৩৩,৪২,৯৬৫ ২,৪৬,৫৬,১৫৩ ১০,০২,৯৮৫
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ
  • আন্তর্জাতিক এর পাঠক প্রিয়