logo
  • ঢাকা সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ৪ ভাদ্র ১৪২৬

এটিএম শামসুজ্জামানকে দেখতে হাসপাতালে পপি

আরটিভই অনলাইন রিপোর্ট
|  ১৯ মে ২০১৯, ২১:১২
কিংবদন্তি অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামানকে দেখতে হাসপাতালে যান চিত্রনায়িকা সাদিকা পারভিন পপি। আজ রোববার বরেণ্য এই অভিনেতাকে দেখতে যান ‘কুলি’ খ্যাত নায়িকা।

bestelectronics
হাসপাতাল থেকে ফিরে পপি ফেসবুকে সেখানকার কিছু ছবি ও স্ট্যাটাস পোস্ট করেছেন। তিনি লিখেছেন, এটিএম শামসুজ্জামান শুধু ভালো একজন অভিনেতা নন, তিনি একজন শিক্ষক, আমার গুরুজন, আমার বাবা, এছাড়াও আমার ভালোবাসার একজন প্রিয় মানুষ। তার হাসি আমার কাছে হাজার কোটি টাকার চেয়ে অনেক বেশি দামি। আমি অনেক লাকি তিনি বাবা হিসাবে সবসময় আমার পাশে থেকেছেন। আর আমার সকল প্রাপ্তি ও ভালো কাজে খুশি হয়েছে এবং অনুপ্রেরণা দিয়েছেন। এজন্য আমি তার কাছে চিরকৃতজ্ঞ।

তিনি গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছেন। আমরা তাকে এই অবস্থায় আর দেখতে চাই না, তিনি সুস্থ হয়ে আমাদের মাঝে ফিরে আসুন। সবাই আমার বাবার জন্য দোয়া করবেন আল্লাহ যেন তাকে তাড়াতাড়ি সুস্থ করে দেন। আমার বাবার পাশে থাকার জন্য ধন্যবাদ মমতাময়ী প্রধানমন্ত্রীকে। তিনি সবসময় শিল্পীদের ভালোবাসেন ও পাশে থাকেন। তার প্রতি অনেক ভালোবাসা ও কৃতজ্ঞতা।

কিংবদন্তি অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামানের চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে ১০ লাখ টাকা অনুদান দেয়া হয়েছে। রাজধানীর পুরান ঢাকার আজগর আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন এই অভিনেতা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই অভিনেতার চিকিৎসার জন্য ১০ লাখ টাকাসহ পুরো চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, গত ২৬ এপ্রিল (শুক্রবার) রাত ১২টার দিকে অসুস্থবোধ করলে তাকে রাজধানীর আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ২৭ এপ্রিল শনিবার টানা তিন ঘণ্টা অস্ত্রোপচার শেষে নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে রাখা হয়। রোববার (২৮ এপ্রিল) সকালে তাকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়। ৩০ এপ্রিল তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় বেলা ৩টার দিকে তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়। দীর্ঘদিন লাইফ সাপোর্টে রাখার পর তার লাইফ সাপোর্ট খুলে দেয়া হয়। এখন সুস্থ হয়ে উঠছেন তিনি।

এটিএম শামসুজ্জামান একাধারে কাহিনীকার, সংলাপ রচয়িতা, চিত্রনাট্যকার, চলচ্চিত্র পরিচালক ও অভিনেতা। তিনি ১৯৪১ সালের ১০ সেপ্টেম্বর নোয়াখালীর দৌলতপুরে জন্মগ্রহণ করেন। পড়াশোনা করেছেন ঢাকার পোগোজ স্কুল, কলেজিয়েট স্কুল, রাজশাহীর লোকনাথ হাইস্কুলে। অভিনয় দিয়ে বাংলা সিনেমা ও নাটকে উল্লেখযোগ্য অবদান রেখেছেন তিনি। অভিনয়ের জন্য পেয়েছেন বেশ কয়েকবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার।

এম/ এমকে

bestelectronics bestelectronics
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়