Mir cement
logo
  • ঢাকা সোমবার, ১০ মে ২০২১, ২৭ বৈশাখ ১৪২৮

বিনোদন ডেস্ক, আরটিভি নিউজ

  ১৭ এপ্রিল ২০২১, ১৩:০২
আপডেট : ১৭ এপ্রিল ২০২১, ১৩:০৮

চট্টগ্রামের মিনা পাল থেকে যেভাবে হয়ে উঠলেন কবরী

চট্টগ্রামের মিনা পাল থেকে যেভাবে হয়ে উঠলেন কবরী
ফাইল ছবি

ঢাকাই সিনেমার ‘মিষ্টি মেয়ে’ কবরী মারা গেছেন। তার মৃত্যুতে চলচ্চিত্রাঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। তার সাফল্যের শুরুটা হয়েছিল ‘সুতরাং’ সিনেমা দিয়ে। চিত্রজগতে কবরীর অসামান্য এক তারকা হয়ে উঠার গল্পটা অনেকেরই জানা।

জন্মসূত্রে কবরীর নাম ছিল মিনা পাল। ১৯৫০ সালের ১৯ জুলাই চট্টগ্রাম জেলার বোয়ালখালীতে তার জন্ম। তার বাবা শ্রীকৃষ্ণদাস পাল এবং মা শ্রীমতি লাবণ্যপ্রভা পাল। জন্মস্থান বোয়ালখালী হলেও শৈশব ও কৈশোর বেড়ে ওঠা চট্টগ্রাম নগরীতে।

আরও পড়ুনঃ চতুর্থ স্বামীকেও ডিভোর্স দিলেন জেনিফার লোপেজ!

‘সুতরাং’ ছবির ‘জরিনা’ চরিত্রের জন্য একটি মেয়ে খুঁজছিলেন অভিনেতা সুভাষ দত্ত। ছবির সংগীত পরিচালক সত্য সাহা সে সময় সুভাষ দত্তকে বলেছিলেন, চট্টগ্রামে একটি মেয়ে আছে, নাম মিনা পাল। তাঁর উচ্চতাও বেশি না। মঞ্চে কাজ করে। চট্টগ্রামের ডা. কামালকে নিয়েই কবরীদের বাড়িতে গেলেন সুভাষ দত্ত। সেখানে কবরীকে না পেয়ে ফিরে আসেন তিনি।

পরবর্তীতে কবরীর ছবি দেখে তাকে ঢাকায় আসতে বলেন সুভাষ দত্ত। কিন্তু কবরীর মা রাজি না। এক স্মৃতিচারণায় কবরী বলেছিলেন, ‘মা কান্নাকাটি করে বাবাকে বললেন, আমার দুধের শিশুকে আমি দেব না। আমারও মা-ভাই–বোনদের ছেড়ে ঢাকায় আসতে ভালো লাগছিল না। মায়ের কান্না দেখে আমিও কান্না শুরু করলাম। বাবা বুঝিয়ে বললেন, ওরা ডেকেছে। আগে মিনা যাক। যদি ভালো না লাগে, তাহলে চলে আসবে। এই বলে বাবা আমাকে নিয়ে বাড়ি থেকে রওনা হলেন।’

আরও পড়ুনঃ ১৫ বছর বয়সে প্রথম ধর্ষিত হয়েছি: ডেমি লোভাটো

সেই থেকে শুরু। ‘সুতরাং’ ছবিতে অভিনয় করতে গিয়ে মিনা পালের ফিল্মি নাম হয়ে যায় কবরী। ‘সুতরাং’ মুক্তি পেলে এই ছবি এবং ছবির নায়িকা হিসেবে কবরী দেশ-বিদেশে প্রশংসিত হন। তারপর জনপ্রিয় নায়িকা হিসেবে চলচ্চিত্র দুনিয়ায় কবরীর শুধুই দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলা। একদিকে দক্ষ অভিনয় অন্যদিকে মনকাড়া হাসি দিয়ে সহজেই তিনি দর্শকমন হরণ করেন। তাই দর্শক তাকে ‘মিষ্টি মেয়ে কবরী’ আখ্যা দিতে ভোলেননি।

এনএস

RTV Drama
RTVPLUS