logo
  • ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

করোনা আপডেট

  •     গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ১৫৪১ জন শনাক্ত, মৃত্যু ২২ জন, সুস্থ হয়েছেন ৩৪৬ জন, ৪৮টি ল্যাবে ৮০১৫টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে, শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ২২ শতাংশ: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

করোনায় ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের জন্য জরুরি তহবিল চায় ডিসিসিআই

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ০৩ এপ্রিল ২০২০, ১৮:০৪
করোনায় ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের জন্য জরুরি তহবিল চায় ডিসিসিআই
করোনায় ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের জন্য জরুরি তহবিল চায় ডিসিসিআই
করোনাভাইরাসের উদ্ভূত পরিস্থিতিতে অতি ক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের জন্য জরুরি তহবিল গঠনের আহ্বান জানিয়েছে ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই)। শুক্রবার (৩ এপ্রিল) সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তহবিল গঠনে সরকারের কাছে প্রস্তাব দিয়েছে সংগঠনটি।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ডিসিসিআই বলছে, ‘বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে ব্যবসা বাণিজ্য, বিনিয়োগ ও সামগ্রিক অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড মারাত্মকভাবে স্থবির হয়ে পড়েছে। দেশের অর্থনীতি, রপ্তানিমুখী শিল্প কলকারখানা, স্থানীয় বাজার নির্ভর উৎপাদন খাত, কৃষি প্রক্রিয়াজাতকরণ শিল্পখাত, সেবা খাত, অতি ক্ষুদ্র এবং মাঝারি ব্যবসা, ট্রেডিং নির্ভর ব্যবসা, পরিবহন ব্যবসা, হোটেল, রেস্তোরাঁ, মুদি দোকান, অপ্রচলিত খাত যেমন ভাসমান অতি ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ও দোকান-পাট উদ্ভূত এ পরিস্থিতিতে মারাত্মকভাবে ক্ষতির সম্মুখিন হচ্ছে। ব্যবসা-বাণিজ্যের উপর এমনকি সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্যের উপর যাতে করোনার প্রভাব না পড়ে সেজন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সময়োপযোগী ও প্রশংসনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। রপ্তানিমুখী শিল্প সুরক্ষায় শ্রমিকদের বেতনাদি পরিশোধের সুবিধার্থে পাঁচ হাজার কোটি টাকার বিশেষ তহবিল গঠন করেছে। এসব উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাচ্ছে ডিসিসিআই।’

‘ফরমাল (প্রচলিত) ও ইনফরমাল (অপ্রচলিত) খাতে অতি ক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র এবং মাঝারি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসমূহ (এমএসএমই) অর্থনীতির প্রবৃদ্ধিতে এবং কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করলেও বর্তমানে এই এমএসএমইদের আর্থিক অবস্থা দুর্বল হয়ে পড়েছে। অর্থনীতির সব স্তরে এমএসএমইর অন্তর্ভুক্ত সব খাত করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে এখন অনেকটাই ক্ষতিগ্রস্ত। অনেক এমএসএমই সীমিত বেচা-কেনা ও পুঁজি সংকটের কারণে খুব খারাপ সময় পার করছে। তাদের অনেকেই সময়মত শ্রমিক এবং কর্মচারীদের বেতনাদি পরিশোধ করতে পারছে না যা বেকারত্ব বৃদ্ধির আশঙ্কা তৈরি করেছে। এ দুঃসময়ে ঢাকা চেম্বার সরকারকে স্থানীয় এমএসএমইর ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ড স্বাভাবিকভাবে পরিচালনা ও এমএসএমই সুরক্ষায় স্বল্প এবং মধ্যমেয়াদি আর্থিক, অনার্থিক নীতি পরিকল্পনানির্ভর সহায়তা প্রদানের জন্য আহ্বান জানিয়েছে ডিসিসিআই।’

আর্থিকভাবে ক্ষতিতে পড়া এমএসএমই এবং অপ্রচলিত খাতের সুরক্ষায় বেতনাদি পরিশোধের সুযোগ করে দিতে ডিসিসিআই সরকারকে এক শতাংশ সুদে তিন বছর মেয়াদি একটি জরুরি তহবিল গঠন করতে বিশেষভাবে আহ্বান জানায়। যেসব এমএসএমইর বার্ষিক টার্নওভার এক কোটি টাকা তাদের জন্য এক শতাংশ আর যে সব এমএসএমইর বার্ষিক টার্নওভার এক কোটি টাকার উপর তাদের জন্য দুই শতাংশ সুদ হারে উক্ত তহবিল থেকে ঋণ প্রদান করা যেতে পারে। সারা দেশে বিসিক শিল্প নগরীর অন্তর্ভুক্ত কারখানাসমূহ ও এ বিশেষ জরুরি তহবিলের আওতায় আসতে পারে। আর এ ঋণ পরিশোধের ক্ষেত্রে এমএসএমইর জন্য এক বছরের গ্রেস পিরিয়ড প্রদান করা যেতে পারে।
পি
 

RTVPLUS

সংশ্লিষ্ট সংবাদ : করোনাভাইরাস

আরও
corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ৩৮২৯২ ৭৯২৫ ৫৪৪
বিশ্ব ৫৬৪১২০৫ ২৪০৭০২৩ ৩৪৯৭০৭
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • অর্থনীতি এর সর্বশেষ
  • অর্থনীতি এর পাঠক প্রিয়