logo
  • ঢাকা শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭

অন্তঃসত্ত্বা কিশোরী পরিবারকে সোয়া লাখ টাকা জরিমানা, না দিতে পারায় মালামাল লুট!

মাগুরা প্রতিনিধি, আরটিভি নিউজ
|  ২১ জুলাই ২০২০, ২০:১২ | আপডেট : ২১ জুলাই ২০২০, ২১:০৭
Pregnant teenage family fined a quarter of a million rupees for not being able to loot goods!
মাগুরা
বিয়ের আগে কিশোরীর অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার অভিযোগে সালিশ বৈঠকের মাধ্যমে ওই কিশোরীর পরিবারকে অবৈধভাবে জরিমানা করার অভিযোগে মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা সিদ্দিকী লিটনের নামে মামলা করেছে এক ভুক্তভোগী বাবা। 

মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে, সালিশি বৈঠকে নির্ধারিত জরিমানার টাকা না দেয়ায় ওই আওয়ামী লীগ নেতা তার লোকজন দিয়ে ওই ভুক্তভোগী বাদীর বাড়ি থেকে একটি গরু, চারটি ছাগল, একটি বাইসাইকেল, ভ্যানসহ বিভিন্ন মালামাল লুট করে নিয়ে এসেছে। ঘটনাটি ঘটে মাগুরা মহম্মদপুর উপজেলার নহাটা ইউনিয়নের পরমেশ্বরপুর গ্রামে। 

পুলিশ ও ভুক্তভোগী পরিবারের লোকজনের সাথে কথা বলে জানা গেছে, মহম্মদপুরের নাহাটা ইউনিয়নের ৮ম শ্রেণি পড়ুয়া এক কিশোরী সাথে সদর উপজেলার বেরইল পলিতা ইউনিয়নের ভাঙ্গুড়া গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে শাহাবুল ইসলামের (১৯) সাথে প্রেমের সূত্র ধরে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। এই ঘটনায় ১৬ জুলাই মেয়ের বাবা (কবির শেখ) বাদী হয়ে অভিযুক্ত শহিদুলের নামে মহম্মদপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এই মামলায় ওই দিনই পুলিশ শহিদুলকে গ্রেপ্তার করে। অন্যদিকে মামলা দায়েরের আগে ১০ জুলাই মহম্মদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নহাটা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মোস্তফা সিদ্দিকী লিটন সালিশ বৈঠকের আয়োজন করে। এই বৈঠকে মোস্তফা সিদ্দিকী লিটন শান্তিপূর্ণ সমাধান দেয়ার বদলে অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ এনে কিশোরীর পরিবারকে ১ লাখ ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করে। যা দেয়ার জন্যে ১০ দিনের সময় বেধে দেয়া হয়। সোমবার ২০ জুলাই ওই নির্ধারিত সময়ে টাকা দিতে ব্যর্থ হন পেশায় ভ্যানচালক ওই কিশোরীর বাবা। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মোস্তফা সিদ্দিকী লিটনের নির্দেশে গত ২০ জুলাই সোমবার তাদের বাড়ি থেকে নহাটা ইউনিয়নের সাবেক সদস্য ওবায়দুর রহমানের নেতৃত্বে একটি গরু, চারটি ছাগল, একটি বাইসাইকেল, ভ্যানসহ বেশকিছু জিনিষপত্র লুট করে নিয়ে আসে একদল দুর্বৃত্ত। এই ঘটনায় নিজে বাদী হয়ে মহম্মদপুর থানায় মোস্তফা সিদ্দিকী লিটনসহ ১৬ জনের নামে এই মামলা করেন ওই কিশোরীর বাবা।  

মহম্মদপুর অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তারক বিশ্বাস জানান, মহম্মদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা সিদ্দিকী লিটন ও সাবেক ইউপি সদস্য ওবায়দুর রহমানসহ ১৬ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করেছেন ওই কিশোরীর বাবা। তাদের বিরুদ্ধে চাঁদা দাবি, মারপিটের মাধ্যমে সাধারণ জখমসহ বিভিন্ন অভিযোগ আনা হয়েছে।

এ বিষয়ে মোস্তফা সিদ্দিকী লিটন মোবাইল ফোনে বলেন, এ ধরণের কোনও সালিশে আমি উপস্থিত ছিলাম না। আর চাঁদা দাবির প্রশ্নই ওঠে না। আমি উল্টো তাদের মামলায় সব ধরণের সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছি। একই সাথে সোমবার তাদের বাড়ি থেকে গরু-ছাগল নেয়ার খবর জানার পরপরই এলাকার মানুষকে ফোন করে সেগুলো ফেরত দেয়ার ব্যবস্থা করেছি।

মাগুরার সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (শালিখা সার্কেল) আবির শুভ্র বলেন, প্রাথমিক তদন্তে এলাকার সালিশি বৈঠকের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। সোমবার ভুক্তভোগীদের মালামাল ছিনিয়ে নেয়ার বিষয়টি জানার পর তাৎক্ষণিকভাবে সেগুলোর বেশিরভাগ উদ্ধার করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। সেই সাথে ভুক্তভোগী পরিবারের নিরাপত্তা নিশ্চিতে ওই এলাকায় সার্বক্ষণিক পুলিশ টহলের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এসএস

RTVPLUS
corona
দেশ আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ২০৬৬৪৯৮ ১৫৩০৮৯ ৩৫১৩
বিশ্ব ২০৫৫৩৩২৮ ১৩৪৬৫৬৪২ ৭৪৬৬৫২
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • দেশজুড়ে এর সর্বশেষ
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়