logo
  • ঢাকা মঙ্গলবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৫ ফাল্গুন ১৪২৬

নারায়ণগঞ্জে ৭ শিল্প প্রতিষ্ঠানকে ৬ কোটি ২৭ লাখ টাকা জরিমানা

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি, আরটিভি অনলাইন
|  ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ২৩:২১
নারায়ণগঞ্জে ৭ শিল্প প্রতিষ্ঠানকে ৬ কোটি ২৭ লাখ টাকা জরিমানা
নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে ইটিপি প্লান্ট ব্যবহার না করে কারখানা পরিচালনা এবং শীতলক্ষ্যা নদী দখল ও দূষণের অভিযোগে এসিআই সল্ট ইন্ডাস্ট্রিসহ সাতটি শিল্প প্রতিষ্ঠানকে ৬ কোটি ২৭ লাখ ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে পরিবেশ অধিদপ্তরের ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসময় তিনটি প্রতিষ্ঠানের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়া হয়। 

পরিবেশ অধিদপ্তরের মনিটরিং অ্যান্ড এনফোর্সমেন্ট বিভাগের পরিচালক (উপ-সচিব) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রুবিনা ফেরদৌসির নেতৃত্বে সংস্থাটির ভ্রাম্যমাণ আদালত আজ মঙ্গলবার (১১ ফেব্রুয়ারি) দুপুর বারোটা থেকে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত রূপগঞ্জ উপজেলার মুড়াপাড়া ইউনিয়নের হাটাব, মিঠাব, মটেরঘাট ও মঙ্গলখালি এলাকায় এ অভিযান পরিচালনা করে। 

অর্থদণ্ডপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে চারটি পেপার মিল, দুইটি লবণ উৎপাদন মিল ও একটি ফ্লাওয়ার মিল রয়েছে। 

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রুবিনা ফেরদৌসি জানান, রূপগঞ্জে শীতলক্ষ্যা নদীর তীরবর্তী এই শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলো উচ্চ আদালতের আদেশ উপেক্ষা করে দীর্ঘদিন যাবত ইটিপি প্লান্ট ছাড়াই তাদের কারখানা পরিচালনা করে আসছিল। যার কারণে নদী দূষণের মাত্রা ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। একই সঙ্গে প্রতিষ্ঠানগুলো নদীর বেশ কয়েক একর জমি অবৈধভাবে দখল করে রাখায় নদীর গতিপথ সংকুচিত হয়ে পড়েছে। তাই নদী দখল ও দূষণের অভিযোগে এই প্রতিষ্ঠানগুলোকে অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়েছে। এর মধ্যে ইউনুস পেপার মিলকে ৩ কোটি ১৬ লাখ ৫১ হাজার ২শ’, অনন্ত পেপার মিলকে ৪৫ লাখ ২১ হাজার ৬শ’, পূর্বাচল পেপার মিলকে ৪৬ লাখ ৮৭ হাজার ২শ’, হাশেম পেপার মিলকে ৩ লাখ টাকা, এসিআই সল্ট ইন্ডাস্ট্রিকে ১ কোটি টাকা, সুপার ক্রিস্টাল সল্ট ইন্ডাস্ট্রিকে ৯৪ লাখ ৫০ হাজার এবং আফজাল ফুড প্রোডাক্টসকে ২১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। তবে জরিমানার অর্থের পরিমাণ বেশি হওয়ায় কারখানার মালিকদের অনুরোধে তাৎক্ষণিক আদায় না করে স্বল্পসময় বেঁধে দেয়া হয়েছে। নির্ধারিত এই সময়ের মধ্যে কোনও প্রতিষ্ঠান জরিমানার অর্থ প্রদানে ব্যর্থ হলে উৎপাদনসহ সব ধরণের কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়ে আরও কঠোর শাস্তি প্রদান করা হবে।

নারায়ণগঞ্জের পরিবেশ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক সাঈদ আনোয়ার জানান, এ অভিযানের ফলে অন্যান্য শিল্প মালিকরা তাদের প্রতিষ্ঠান পরিচালনার ক্ষেত্রে সরকারের নীতিমালাগুলো মেনে চলার ব্যাপারে আরও সতর্ক হবে। পরিবেশ দূষণবিরোধী এ অভিযান চলমান থাকবে এবং দূষণকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়
  • দেশজুড়ে এর সর্বশেষ
  • দেশজুড়ে এর পাঠক প্রিয়